অনলাইন শপিং সম্প্রসারণে বিলুপ্ত হবে দোকানপাট

Print

ব্রিটেনে অনলাইন শপিং এতটাই জনপ্রিয় হয়েছে যে, দোকান ব্যবসায়ীরা অনলাইন শপকে আগ্রাসন হিসাবে দেখছে। দোকানপাট পরিচালনায় সার্বিক ব্যয় বৃদ্ধিতে পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে যে ইতিমধ্যে শপিং স্ট্রিটগুলো থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ক্রেতারা।

বিশেষ ছাড়, বাড়িতে পণ্য পৌঁছে দেয়ার নিশ্চয়তা দিয়ে সহজেই ক্রেতা খুঁজে পাচ্ছে অনলাইন শপগুলো। ক্রেতার সময় বেচে যাওয়া, যানজট এড়িয়ে কেনাকাটার ঝক্কি ছাড়াই পছন্দসই পণ্য হাতে পাওয়ার মত বিভিন্ন সুযোগে দোকানপাট, বিপনিবিতান বা শপিংমলের দ্বারস্থ হতে চাচ্ছেন না ব্রিটিশ নাগরিকরা।

এর মিলিত প্রভাব উল্লেখযোগ্যহারে পড়েছে দোকানদারির ওপর। এর ফলে ব্রিটেনের নামকরা সব হাইস্ট্রিটগুলো নিরব নিথর হয়ে পড়ছে। এভাবে চলতে থাকলে ২০৩০ সালের আগেই দোকানপাটের ব্যবসা লাটে উঠবে বলে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে এ্যাশলে নামের আসবাব কোম্পানি, যাদের সারাবিশ্বে ৮ শতাধিক স্টোর রয়েছে বলে জানিয়েছে মিরর।

অনলাইন শপিং’এর সাথে প্রতিযোগীতায় দোকানপাটের ব্যবসাকে কিভাবে টিকিয়ে রাখা যায়, সে জন্যে বিভিন্ন সুযোগ ও ছাড় দেয়ার বিবেচনা ছাড়াও টিকে থাকার নানা কৌশল নিয়ে ভাবছেন ব্যবসায়ী নীতিনির্ধারকরা।

ইতিমধ্যে অনলাইন শপিংএ নতুন করে ফের কর আরোপের দাবি তুলেছেন তারা। নিউক্যাসল ইউনাইটেড নামে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বলছে অনলাইন শপিং’এর চেয়ে তারা খুচরা বিক্রিতে অতিরিক্ত ২০ শতাংশ কর দিচ্ছেন। তারপরও তাদের ব্যবসা টিকিয়ে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। বিকল্প হিসেবে অনলাইন ব্যবসার বিকল্প হিসেবে ছোট ছোট মোবাইল শপ ব্যবসা চালুরও চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। কিন্তু রাস্তায় যদি ক্রেতাদের না পাওয়া যায় তাহলে এ বিকল্প কোনো কাজে আসবে না বলেও তারা শঙ্কা প্রকাশ করছেন।

ব্রিটেনের হাউজিং এন্ড লোকাল গভর্নমেন্ট সিলেক্ট কমিটি বলছে, ‘অক্সফোর্ড স্ট্রিটস বা ওয়েস্টফিল্ডস’এর মত বনেদি কেনাকাটার এলাকাগুলো নিথর হয়ে পড়েছে ক্রেতাশূণ্যতায়। আর লন্ডনের বাইরে এধরনের এলাকাগুলো ইতিমধ্যে ভুতুড়ে পরিবেশে রুপান্তরিত হয়েছে। ইন্টারনেট বা ইন্টারনেট ভিত্তিক অনলাইন ব্যবসা এধরনের ব্যবসাকে হত্যা করেছে। হাউজ অব ফ্রেসারস বা মার্কস এন্ড স্পেন্সারস’এর মত বড় বড় চেইনশপগুলো এখন বিষয়টি নিয়ে রীতিমত শঙ্কিত।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 15 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com