অন্য সময়গুলোতেও এমনটা থাকলে ভালো হতো

Print

শবনম বুবলীর ক্যারিয়ারে এ পর্যন্ত ‘বসগিরি’, ‘শুটার’, ‘অহংকার’, ‘রংবাজ’, ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’, ‘সুপার হিরো’, ‘ক্যাপ্টেন খান’, ‘পাসওয়ার্ড’ এবং সবশেষ কোরবানি ঈদে ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিগুলো মুক্তি পেয়েছে। এই নয়টি বিগ বাজেটের ছবিতে অল্প সময়ে কাজ করে প্রশংসা পেয়েছেন ঢালিউডের এই অভিনেত্রী। তারপরও তিনি জানান অন্য সবার চেয়ে কম কাজ করেছেন। বুবলী বলেন, আমার কাজের সংখ্যা কম। আর আমি একসঙ্গে দু’তিনটি সিনেমার কাজ করি না। একটা শেষ করে আরেকটির কাজ শুরু করি। এই যেমন ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিটি গত কোরবানি ঈদে মুক্তি পেয়েছে। জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত এ ছবিটির জন্য বেশ সাড়া পেয়েছি।

এ ছবির পর নতুন ছবি ‘বীর’ সামনে শুরু করবো। বর্তমানে তার প্রস্তুতি চলছে। বুবলী বলেন, যে ধরনের গল্প দর্শকরা দেখতে চায় সে ধরনের ছবি হচ্ছে ‘বীর’। এ জাতীয় ছবিতে কাজের সুযোগ রয়েছে। এমন ছবিই মূলত আমি করতে চাই। আর সিনেমা ব্যবসা করার পাশাপাশি শিল্পীদের দায়বদ্ধতার বিষয়টিও থাকে। সংখ্যা কম হলেও ভালো কিছু প্রজেক্টে কাজ করতে চাই। সামনে কি ধরনের প্রজেক্টে দর্শক বুবলীকে দেখতে পাবেন? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নেক্সট কয়েকটি প্রজেক্ট নিয়ে কথা চলছে। সেগুলো সম্পর্কে সামনে জানাবো। বর্তমানে ‘বীর’ ছবিটি নিয়েই প্রস্তুতি চলছে। আগামী ২০শে অক্টোবর থেকে পুবাইলে এ ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। ‘বীর’ ছবির গল্পটা চমৎকার। এ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে বুবলী অভিনয় করবেন। শাকিব খানের বাইরে এখনো বুবলীকে দর্শকরা বড় পর্দায় অন্য নায়কের বিপরীতে দেখতে পান নি কেন? এর জবাবে তিনি বলেন, আমি দর্শক হলে তাই চাইতাম। আর দর্শকের এমন চাওয়া থাকবে সেটাই স্বাভাবিক। তাদের চাওয়া পূরণ করাটাও আমার দায়িত্ব। এরমধ্যে বেশ কিছু প্রজেক্ট এসেছিল। তবে সেগুলো করা হয়নি। যেহেতু করা হয়নি তাই বিষয়টি নিয়ে এখন কথা বলতে চাই না। কিছু প্রজেক্ট রিলিজও হয়ে গেছে। যেগুলো আমার করার কথা ছিল। আমি সামনে ভালো নির্মাতা, ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে অবশ্যই করবো। দর্শকরা সামনে আমাকে অন্য নায়কের বিপরীতেও দেখতে পাবেন। এটা দর্শকদের জানাতে চাই। তবে সেজন্য একটু সময় লাগবে বলে জানান বুবলী। তিনি যোগ করে আরো বলেন, শিল্পী হিসেবে সব নির্মাতা, সহশিল্পীর সঙ্গে কাজ করা উচিত বলে মনে করি আমি। বিভিন্ন কাজে অল্প সময়ে সুযোগ পেয়েছি আমি। তবে আমার ক্যারিয়ারে শিল্পী হিসেবে নিজস্ব সন্তুষ্টির জন্য আরো ভালো কিছু কাজ সামনে করার পরিকল্পনা রয়েছে। যেমন ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিতে আমার চরিত্রটি ছিল ভিন্ন ধরনের। এ চরিত্রে অভিনয় করে আমার নিজেরই বেশ ভালো লেগেছে। বর্তমান চলচ্চিত্রের অবস্থা এখন নাজুক। এ বিষয়ে বুবলী বলেন, কোনো উৎসবে যখন সকলের ছবি থাকে তখন নিজেরই বেশ ভালোলাগে। উৎসব উৎসব মনে হয় নিজের কাছে। কারণ তখন মনে হয় ইন্ডাস্ট্রির সকলের ছবিই তো পর্দায় আছে। অন্য সময়গুলোতেও এমনটা থাকলে ভালো হতো। ভালো মানের ছবি সব সময়ই প্রেক্ষাগৃহে থাকলে দর্শক অন্তত হতাশ হতো না। এর ফলে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজও বেড়ে যেতো। তখন সকল শিল্পীই ব্যস্ত হয়ে পড়তো। কারণ ছবি মুক্তির আগে প্রচারণায় শিল্পীরা অংশ নিতো, সিনেমা হলে নিজের ছবি দর্শকসারিতে বসে দেখার বিষয়গুলো থাকতো। সবমিলিয়ে তখন চাঙ্গা থাকতো ফিল্মের বাজার। তবে দর্শকরা আমাকে বেশ উৎসাহিত করেছেন প্রতিটি কাজে। শুধু দর্শক না, আমার সহশিল্পী, সিনিয়র অনেক পরিচালক, প্রযোজক আমাকে কাজে নিয়েছেন। তাই কাজ করার সুযোগ হয়েছে আমার। এভাবে সামনে ভালো কাজ দর্শকদের উপহার দিতে চাই।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 35 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com