অপরাধ গুরুতর, সাজা ‘নামমাত্র’

Print

নকল ওষুধ পাওয়া গেছে দেশের অভিজাত দুই হাসপাতাল ইউনাইটেড এবং অ্যাপোলোতে। রোগ পরীক্ষা করা হয় যে উপাদান (রিএজেন্ট) সেটিও মেয়াদউত্তীর্ণ পাওয়া গেছে এই দুই হাসপাতালে। আবার ব্লাড ব্যাংকের লাইসেন্স ছাড়াই রক্ত বিক্রি করার মতো গুরুতর অপরাধে সাজা পেয়েছে আরেক অভিজাত হাসপাতাল স্কয়ার।

অভিযোগ গুরুতর। কারণ ভেজাল ওষুধ আর মেয়াদউত্তীর্ণ রিএজেন্টে রোগ পরীক্ষায় কত রোগীর মৃত্যু বা কত রোগী ভুগেছে, সেটি জানার উপায় নেই। অথচ এসব অভিযোগে হাসপাতালগুলোকে জরিমানা করা হয়েছে সর্বনিম্ন দুই লক্ষ ৬৫ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ২০ লাখ টাকা।

আবার অ্যাপোলোতে ভেজাল ওষুধ ও মেয়াদউত্তীর্ণ রিএজেন্ট পাওয়া গেছে দুইবার। রীতি অনুযায়ী একই অপরাধ দুইবার করলে সাজা হওয়ার কথা প্রথমবারের তুলনায় অনেক বেশি। কিন্তু অ্যাপোলোর ক্ষেত্রে সেটা হয়েছে উল্টো।

একজন চিকিৎসক বলেন, ‘নামি প্রতিষ্ঠানগুলোতে একটি সাধারণ সমস্যা দেখা যাচ্ছে, সেটা হলো রিএজেন্টগুলো মেয়াদউত্তীর্ণ। এর দাম তো খুব বেশি নয়। তার মানে এটা তারা ইচ্ছা করেই করছে।’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 196 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com