আইটি ব্যবসায় সফল হওয়ার কৌশল

Print

বাংলাদেশে আইটি ইন্ডাস্ট্রির ইতিহাস খুব বেশি দিনের নয়; কিন্তু সে তুলনায় আইটি এদেশের অর্থনীতিতে বিশেষ অবদান রাখার মত একটি ইন্ডাস্ট্রি হিসেবে দ্রুত উঠে এসেছে। প্রতি বছর অনেক আইটি কোম্পানি চালু হচ্ছে। এসব কোম্পানির কেউ কেউ অনেক ভাল করছে, আবার অনেকেই ভাল করতে না পারায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

আইটি ব্যবসায় সফল হওয়ার অনেক মন্ত্র রয়েছে, যেগুলো জানার চেয়ে বেশি জরুরি হলো সে বিষয়গুলো জানা যেগুলো আইটি ব্যবসা পরিচালনার সময় এড়িয়ে চলা উচিত। জেনে নেওয়া যাক সেই বিশেষ বিষয়গুলো।

অভিজ্ঞতা না থাকা শর্তেও ঝোঁকের বসে ব্যবসা শুরু করা: যেকোনো ব্যবসা শুরু করার আগে আপনি যা নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন, সেই প্রোডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান থাকা জরুরি। অন্যথায়, কিছু না জেনেই হুট করে ব্যবসা শুরু করা আর সাঁতার না জেনে পানিতে লাফ দেওয়া অনেকটা এক রকম ব্যাপার হয়ে যাবে। অনেকেই ‘আইটি ব্যবসায় প্রচুর লাভ’ এই কথা মনে করে ঝোঁকের বসে ব্যবসা শুরু করে দেন। অবশেষে আইটি প্রোডাক্ট, সার্ভিস এবং সর্বোপরি টেকনোলজি সম্পর্কে ধারণা না থাকার কারণে এক সময় ব্যবসা বন্ধ করে দিতে হয়। শুধু স্বপ্ন, অর্থ বা দক্ষ লোকবল থাকলেই চলে না, উদ্যোক্তা সম্পর্কে যথেষ্ট জ্ঞান থাকা জরুরি।

সুনির্দিষ্ট ভিশন এবং মিশন স্টেটমেন্ট না থাকা: অনেক কোম্পানি থিওরিটিক্যালি বিভিন্ন ভিশন-মিশন লিখলেও মনেপ্রাণে শুধু অর্থ উপার্জনকেই মূল ভিশন-মিশন মনে করে, যেটি আসলে ফলপ্রসূ হয় না। বাস্তবে দেখা গেছে, সেসব কোম্পানিই সত্যিকারে ব্যবসা সফল হয়েছে যারা মানুষকে সেবা দিতে চেয়েছে।

যুগোপযোগী প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে না আসা: কোনো কোম্পানি বছরের পর বছর একই সেবা দিয়ে ব্যবসা ধরে রাখতে পারে না। একটা নির্দিষ্ট সময় পর তাকে সেই প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের নতুন কোনো ধরন বা পুরোপুরি নতুন ধরনের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে আসতে হয়, না হলে ব্যবসা ধরে রাখা মুশকিল হয়ে পড়ে। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ক্রেতাদের চাহিদার কথা চিন্তা করে প্রোডাক্ট বা সার্ভিসে পরিবর্তন না আনলে কোম্পানি ধীরে ধীরে পিছিয়ে পড়বে।

শুধু জনবলভিত্তিক সার্ভিস দেওয়া: শুধু ওয়েবসাইট, সফটওয়্যার, অ্যাপ বা ডিজিটাল মার্কেটিং ইত্যাদি সেবা লোকবলভিত্তিকভাবে দিয়ে বড় কোম্পানি তৈরি করা সম্ভব না। যতদিন যাচ্ছে বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর অনেকেই ওয়েবসাইট, সফটওয়্যার, অ্যাপ বা ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের জন্য নিজেদের টিম তৈরি করে নিচ্ছে। সুতরাং ধীরে ধীরে বড় বাজেটের ক্লায়েন্ট কমে গিয়ে মার্কেটে শুধু মাঝারি এবং ছোট বাজেটের ক্লায়েন্টগুলোই থেকে যাচ্ছে। কোম্পানিকে দীর্ঘস্থায়ী এবং বড় করতে হলে অবশ্যই সার্ভিস দানকারী ওয়েবসাইট, সফটওয়্যার, মোবাইল অ্যাপ বা ডিজিটাল মার্কেটিং প্লাটফর্ম তৈরির দিকে ঝুঁকতে হবে। সফটওয়্যার-অ্যাজ-আ-সার্ভিস (যেমন: এন্টারপ্রাইজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম), কাস্টমার-টু-কাস্টমার বা বিজনেস-টু-কাস্টমার প্লাটফর্ম (যেমন: অ্যামাজন, ই-বে, উবার, পাঠাও) বা ডিজিটাল এগ্রিগেটর প্লাটফর্ম (যেমন: এসএমএস গেটওয়ে, পেমেন্ট গেটওয়ে, ডিমান্ড সাইড প্লাটফর্ম) ইত্যাদির প্রচুর চাহিদা রয়েছে, যা নিয়ে হাতেগোনা কিছু কোম্পানিই কাজ করে।

কাস্টমারের কাছ থেকে প্রজেক্ট পেতে প্রজেক্টের টাইম এবং বাজেট অনেক কমিয়ে ফেলা: অনেক কোম্পানি বিশেষ করে স্টার্টআপ কোম্পানিগুলো মনে করে যে কাস্টমারকে কম বাজেট এবং কম টাইম বললে সে খুশি হয়ে প্রজেক্ট দিয়ে দেবে। নতুন কোম্পানির শুরুতে ক্লায়েন্ট পাওয়ার জন্য রিজনেবল ডিসকাউন্ট অফার করা খারাপ না। কিন্তু তাই বলে অত্যধিক কম বাজেট বা টাইম দেওয়া কখনই উচিত নয়। দেখা যাবে, আপনার সীমিত লোকবল দিয়ে আপনি দ্রুত প্রজেক্ট শেষ করতে যাবেন, তখন আর কোয়ালিটি মিট করা সম্ভব হবে না; অথবা বাজেট কম করে ফেলার কারণে দেখা যাবে আপনাকে হয়তো লস ঠেকাতে দায়সারাভাবে প্রজেক্ট শেষ করতে হচ্ছে। এভাবে বাজেট বা সময় কমিয়ে আপনি হয়তো প্রজেক্ট পাবেন, কিন্তু সেটি হয়তো আপনার ওই ক্লায়েন্টের সঙ্গে শেষ প্রজেক্ট হবে। সুতরাং ‘কম সময়’ বা ‘খুবই কম বাজেট’-কে আপনার হাতিয়ার না বানিয়ে, ‘কোয়ালিটি ডেলিভারি’-কে আপনার হাতিয়ার বানান, তাতেই বরং আপনি ক্লায়েন্টকে ধরে রাখতে পারবেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 60 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com