আমরা কেউই মা’র মতো হতে চাই না

Print

বীথি সপ্তর্ষি

কি এবিসি চেয়ার, কি এক্সওয়াইজেড গুড়া মশলা, কি রহিম টয়লেট ক্লিনার; কোন একটা দিবস আসলেই হল। নারী দিবস আসলে নারী নিয়ে, মা দিবস আসলে মা নিয়ে শুরু করে ডকুমেন্টারি বানানো। আর নারী নিয়ে যে কোন ডকুমেন্টারি মানেই ম্যাজিকের মতো ঘর পরিষ্কার হবে, জামা-কাপড় তকতক করবে, খাবার-দাবার রেডি থাকবে এমনকি টিফিন ক্যারিয়ার ভরা থাকবে, সন্তানের জন্য রাত জেগে হাতে দুধের গেলাস নিয়ে বসে থাকবে।

আচ্ছা এরা কি মা নিয়ে এসব ভিডিও বানায় নাকি কাজের লোক নিয়ে? মা নিয়েই যদি হবে তো কোন ভিডিওতে কেন দেখলাম না কোন সন্তান মায়ের কাপড় পরিষ্কার করল, ঘর-দোর পরিষ্কার করল, রান্না-বান্না করে মাকে খাইয়ে দিল। কেন দেখলাম না?

তার মানে এইসব ভিডিও বানানো কোম্পানিওয়ালাদের কাছে এখনো মা মানে অফিস-আদালতে ওয়ার্কিং মা নয়, মা মানে শুধুই ঘরের কাজের লোক! মা মানে যার ছোঁয়ায় জীবন সুন্দর হয়, পরিপূর্ণ হয় কিন্তু যার জীবন কখনো সুন্দর হয় না, পরিপূর্ণ হয় না। কি আশ্চর্য!

আমাদের সমাজে তার মানে ওয়ার্কিং উইমেনরা এখনো মা নন? নাকি ভাল মা নন? তারা সারাদিন ঘরের বাইরে হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করে আসে বলে হিংসুটে পুরুষেরা তাদেরকে এখনো সম্মান করতে চান না? ওটিতে ঢোকার আগমুহূর্ত পর্যন্ত যে মায়েরা ল্যাপটপ নিয়ে অফিসের কাজ করে স্ট্যান্ডবাই রেখে বাচ্চা জন্ম দিতে যায়, সেসব মায়েরা কি মা নয়? বাচ্চারা কি এমন মায়েদের মা বলে ডাকতে চায় না, নাকি?

গুণধর সন্তানদেরও অবশ্য একই অবস্থা। মায়ের বন্দনা করতে বসলেই প্রথমেই চলে আসে মা তাদের জন্য প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কী কী করে তাদের খুশি রাখে। এসব বলার আগে চক্ষুলজ্জা বিষয়ে কার কতখানি জ্ঞান আছে সেটা ঝালাই করে নিয়ে অন্তত বলা উচিত। টাকা দিয়ে কাজের লোকের সেবা কিনে নেওয়ার কাজগুলোই মা’র কাছ থেকে ফ্রীতে নিয়ে মা দিবসের চ্যাঁচানি শুনলে আমার লজ্জা লাগে। অথচ এরা, বিশেষ করে পুরুষেরা কোনদিন তো মায়ের মতো হতেই চায় না। সবাই বলে ‘আমি বড় হয়ে বাবার মতো সফল হতে চাই।’ কেউ কিন্তু কোনদিন বলে না ‘আমি মায়ের মতো ম্যাজিক হতে চাই’! মানেটা খুব সহজ। এসব লোক দেখানো দু’একদিন মাকে তার কাজের স্বীকৃতি দিয়ে জাতে তোলা আর তার মতো হতে চাওয়ার মধ্যে পার্থক্য আছে। দিনশেষে আমরা সকলেই কিন্তু জানি মা’র মতো অসফল, অকর্মণ্য, গুরুত্বহীন আর নিঃস্বার্থভাবে দান করার মতো মানুষ সংসারে আর কেউ নেই। আমরা কেউই তাই মা’র মতো হতে চাই না।

সকল মাকে মা দিবসের ভালবাসা ও শ্রদ্ধা। আর কিচ্ছু না হোক, ১০ মাস পেটের ভেতর নিয়ে, নিজের সমস্ত সুখ নির্বাসনে পাঠিয়ে, তোমাদের অনেক কিছু করতে পারার বিপরীতে কিছুই করতে না পারা আমাদের মতো স্বার্থপর, অপদার্থ মানুষদের পৃথিবীতে আনার জন্য আমার নতজানু ভালবাসা। ম্যাজিক হও বা না হও, কিচ্ছু এসে যায় না।

লেখক: সাংবাদিক

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 768 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com