আমি এখন দর্শকের মেহজাবীন

Print

বিদেশি বিমান সংস্থার কর্মকর্তা বাবার চাকরিসূত্রে মেহজাবীনের ছেলেবেলা কেটেছে ওমান ও দুবাইতে। ফলে পরিবারের মধ্যে বাংলায় কথা বলা ছাড়া স্বদেশের সংস্কৃতির সঙ্গে তাঁর কোনো যোগাযোগ ছিল না। ২০০৮ সালে ও লেভেল পড়ার সময় দেশে ফিরে দেখলেন, স্বদেশ তাঁর অজানা। তখন কে জানত, এই অজানা দেশেই একদিন তাঁকে অনেক মানুষ চিনবে!

খ্যাতির আকাঙ্ক্ষা ছিল প্রবল। ‘আমি যা কিছুই করি না কেন, বিখ্যাত হতে চেয়েছি,’ তিনি বলেন। কিন্তু বিষয়টা সহজ ছিল না। প্রথমে জানাই ছিল না কী করবেন। দেশে ফেরার বছরখানেকের মধ্যে পথ খুলে গেল একটি প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে। সেই গল্প বললেন: ‘আমার দাদা ও নানাবাড়ি চট্টগ্রামে। বিদেশ থেকে ফিরে চট্টগ্রামে স্থায়ী হলাম। কাজিনরা সব বড় বড়। সমবয়সী কেউ নেই। কোনো বন্ধু নেই। ২০০৯ সালে একদিন পত্রিকায় লাক্স–চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার বিজ্ঞাপন দেখে রেজিস্ট্রেশন করলাম। তারপর অডিশন এবং সেরা ২৫ জনের একজন হয়ে ঢাকায় চলে এলাম। টানা তিন মাস গ্রুমিং হলো: নাচ, অভিনয়, র‌্যাম্পে হাঁটা, কথা বলাসহ নানা কিছু শিখলাম।’

কিন্তু মেহজাবীনের জন্য এই প্রতিযোগিতা ছিল বিশেষভাবে কঠিন। অন্য প্রতিযোগীরা বেড়ে উঠেছেন স্বদেশেরই আলো–হাওয়ায়, সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলে; অভিনয়, নাচ কিংবা গানে তাঁদের কিছু না কিছু অভিজ্ঞতা ছিল। কিন্তু মেহজাবীনের কোনো অভিজ্ঞতাই ছিল না। উপরন্তু আজীবন থেকেছেন বিদেশে, পড়াশোনা করেছেন ইংরেজি মাধ্যমে। বাংলায় লিখতে–পড়তে না জানা ছিল একটা বড় ঘাটতি। সব ঘাটতি কাটিয়ে ওঠার আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন। চেষ্টা সফল হয়েছে: সবাইকে ছাড়িয়ে লাক্স–চ্যানেল আইন সুপারস্টার চ্যাম্পিয়নের মুকুট জয় করেছেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 19 বার)


Print
bdsaradin24.com