আ’লীগে নারী প্রতিনিধিত্ব বাড়লেও হয়নি কোটা পূরণ

Print

আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে তেমন বড় ধরনের কোনো চমক আসেনি। নবমবারের মতো সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন ওবায়দুল কাদের। আলোচনায় না থাকলেও কার্যনির্বাহী কমিটিতে জায়গা পেয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক কিছু তরুণ নেতা। তবে এ পর্যন্ত কার্যনির্বাহী কমিটির ৮১ সদস্যের মধ্যে ৭৪ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৯ জন নারী বিভিন্ন পদে জায়গা পেয়েছেন। ঘোষিত কমিটিতে গতবারের চেয়ে নারী প্রতিনিধিত্ব একটু বেড়েছে। তবে ৩৩ শতাংশের কোটা এখনো পূরণ হয়নি ক্ষমতাসীন দলে।

নতুন কমিটি বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গতবারের চেয়ে নারী প্রতিনিধিত্বের হার একটু বেড়েছে। তবে ৩৩ শতাংশ পূরণ করতে পারেনি টানা তিন মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা এ দলটি। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ২০০৯ (সংশোধিত)-এর ৯০ বি ধারা অনুযায়ী, ২০২০ সালের মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর কেন্দ্রীয় কমিটিসহ সব কমিটিতে নারীদের জন্য কমপক্ষে ৩৩ শতাংশ পদ নিশ্চিত করার বিধান আছে। সেক্ষেত্রে আরো এক বছর সময় পাচ্ছে ক্ষমতাসীনরা। আওয়ামী লীগের গত কমিটিতে নারী প্রতিনিধির হার ছিল ১৯ দশমিক ৭৩ শতাংশ; অর্থাৎ প্রায় ২০ শতাংশ। এবার তা বেড়ে ২৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ; অর্থাৎ ২৬ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। যদিও ২০১২ সালের কমিটিতে নারী নেতৃত্বের হার ছিল মাত্র ১১ শতাংশ।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে গঠনতন্ত্র সংশোধন করে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সংখ্যা ৭৩ থেকে বাড়িয়ে ৮১ করা হয়। গত ২০ ও ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন। দলের পক্ষ থেকে এ পর্যন্ত ৭৪ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে নারী হলেন সর্বমোট ১৯ জন।

কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি হলেন শেখ হাসিনা। সভাপতিমণ্ডলীর ১৭ জন সদস্যের মধ্যে নারী হলেন তিনজন। তারা হলেন- সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, বেগম মতিয়া চৌধুরী ও অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। যুগ্মসাধারণ সম্পাদক পদে চারজনের মধ্যে একমাত্র নারী হলেন ডা: দীপু মনি। সম্পাদকমণ্ডলীর ২৯ জনের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৫ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে নারী হলেন ৬ জন। তারা হলেনÑ অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক বেগম ওয়াসিকা আয়শা খান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা এবং স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা: রোকেয়া সুলতানা। এখনো ঘোষণা করা হয়নি একটি সাংগঠনিক সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক এবং ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক। এ ছাড়া ৮ জন বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক পদের মধ্যে একজনও নারী ঠাঁই পাননি। নতুন কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য পদে ২৫ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে নারী হলেন ৮ জন। তারা হলেন- আখতার জাহান, মেরিনা জামান কবিতা, পারভীন জামান, হুসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, সফুরা খাতুন, সানজিদা খানম, মারুফা আক্তার পপি ও গ্লোরিয়া সরকার ঝর্ণা। এখনো তিনটি সদস্য পদে এখনো কাউকে মনোনয়ন দেয়া হয়নি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 51 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com