আশুলিয়ায় টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষকে বহিস্কার, অফিস কক্ষ ভাংচুর

Print
অনিয়ম ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে

আশুলিয়ায় টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষকে বহিস্কার, অফিস কক্ষ ভাংচুর
ঢাকাঃ জেলা প্রতিনিধি
রাজধানী ঢাকার উপকন্ঠ আশুলিয়ায় টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ ও দি টাঙ্গাইল ক্যাডেট একাডেমি’র অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফ কে সেচ্ছাচারিতা ও নিয়ম বহির্ভূত অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে বহিস্কার করেছে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আলহাজ মাসুদ রানা ও সাভার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কামরুন্নাহার। প্রতিষ্ঠানের সভাপতির এক আবেদনের প্রেক্ষিতে দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সরেজমিনে  সেচ্ছাচারিতা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগটি তদন্ত করেন। তদন্তে অভিযোগের প্রমান পাওয়ায় তাকে বহিস্কারের ব্যাপারে মতামত দেয়া হয়।
২২ আগষ্ট স্মারক নং টিআরএফসি/এডমিন/বরখাস্ত ও অব্যহতি ২০/০৮/১৯ বহিস্কার প্রধান শিক্ষক পদ হতে লিখিতভাবে ঘোষনা দেয়া হয়। বিবাদী আব্দুল লতিফ অব্যহতি পত্র পাওয়ার পর ক্ষিপ্ত হয়ে সভাপতির ছোট ভাই মোজাফফর হোসেন আকাশ ও তাকে খুন করার হুমকি দেয়। এরই জের ধরে ২১ সেপ্টেম্বর শনিবার সকালে প্রতিষ্ঠানটিতে আব্দুল লতিফ ও তার ০০২৮/১৯ জন সহযোগি ঢুকে সভাপতি মাসুদ রানার অফিস ব্যাপক ভাংচুর চালায়। ঘটনায় থানায় ডাইরি ও অভিযোগ হয়েছে।
এ ব্যাপারে সভাপতি মাসুদ রানা বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ তিনি তার প্রতিষ্ঠিত দু’টি প্রতিষ্ঠান সুনামের সাথে পরিচালনা করছেন। তার সহোদর ভাই আব্দুল লতিফ কে এক পর্যায়ে প্রতিষ্ঠান দু’টি দেখভালের দায়িত্ব দেই। এ সুযোগে কৌশল অবলম্বন করে তার অগোচরে নিজে নিজেই প্রধান শিক্ষক ও অধ্যক্ষ দাবি করে প্রচারণা শুরু করে। এ সুবাধে ব্যাপক দূর্নীতি চালায়। বিষয়টি আমি জানতে পেরে তাকে বহিস্কার করি এবং বিবাদী আব্দুল লতিফের বিরুদ্ধে সাভার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও সাভার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করি। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কামরুন্নাহারের নেতৃত্বে সরেজমিনে তদন্ত হয়। তদন্তে তার আনীত অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় আব্দুল লতিফকে অব্যহতি দেয়ার আদেশ দেন।
সভাপতি মাসুদ রানা আরো জানান, মাস দু’য়েক আগে স্কুল পরিচালনার জন্যে আর্থিক সংকটে পড়েন তিনি। এসময় তার গাজীরচট এলাকার একটি বাড়ি বিক্রি করার ঘোষনা করেন তিনি। বাড়িটি ৭৫ লাখ টাকায় ক্রয় করার জন্য আব্দুল লতিফ তার বড় ভাই মাসুদ রানা কে প্রস্তাব করেন এবং সাব কবলা দলিল সম্পাদন করে ক্রয় করেন। এছাড়া আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকার বসুন্ধরা হাউজিংয়ে একটি সোয়া ৮ শতাংশের প্লট ক্রয় করেন ৮৭ লাখ টাকায় ক্রয় করেন  আব্দুল লতিফ। এসকল টাকার উৎস সম্পর্কে সে কিছুই জানাতে পারেনি বলে মাসুদ রানা জানান। এসকল টাকা তার প্রতিষ্ঠিত দু’টি প্রতিষ্ঠানের বলেও তিনি দাবি করেন। ১ হাজার ২ শত শিক্ষার্থীর বেসরকারি প্রতিষ্ঠান টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ ও দি টাঙ্গাইল একাডেমি। ৩টি পৃথক ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হয়। আবাসিক ও অনাবাসিক হিসেবে প্রতিষ্ঠানটিতে মাসিক আয় প্রায় ৫০ লাখ টাকা।
সরেজমিনে তদন্তে আব্দুল লতিফ ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিয়ম বহির্ভূতভাবে তারই স্ত্রী সোনিয়া আক্তার কে অভিভাবক সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেন। অথচ আবদুল লতিফের কোন সন্তান ওই প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়া করে না। অনৈতিক অর্থ আত্মসাতের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষুন্ন করে প্রতিষ্ঠাতা বড় ভাই মাসুদ রানা কে সরানোর পরিকল্পনা করে আবদুল লতিফ। এসকল বিষয়গুলো সাভার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের লিখিত তদন্ত রিপোর্টে প্রকাশিত হয়।
এ সকল ঘটনায় ক্ষুব্দ হয়ে আব্দুল লতিফ গংরা শনিবার  সকালে ভাংচুর করে। একই ঘটনার জেরে ২২ সেপ্টেম্বর রোববার সকালে তার অনুসারী শিক্ষার্থীদের আবদুল্লাহপুর-বাইপাইল সড়কে নামিয়ে গাড়ি ভাংচুরের চেষ্টা চালায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং শিক্ষার্থীদের সরিয়ে দেয়।
জানতে চাইলে আশুলিয়া থানা উপ পরিদর্শক আব্দুল জলিল জানান, লতিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ হয়েছে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান।
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 2233 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com