ঢাকামঙ্গলবার , ২৮ জুন ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস ঐতিয্য
  3. ইসলাম
  4. কর্পোরেট
  5. খেলার মাঠে
  6. জাতীয়
  7. জীবনযাপন
  8. তথ্যপ্রযুক্তি
  9. দেশজুড়ে
  10. নারী কন্ঠ
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. ফার্মাসিস্ট কর্নার
  13. ফিচার
  14. ফ্যাশন
  15. বিনোদন

আশুলিয়ায় শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা, উত্তপ্ত হচ্ছে এঅঞ্চলের শিক্ষাঙ্গন

Link Copied!

সাভারের আশুলিয়ায়  শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে  উত্তপ্ত হচ্ছে এই এলাকার  শিক্ষাঙ্গন।
হাজী ইউনুছ আলী স্কুল এন্ড কলেজে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে উঠছে এ অঞ্চলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। ইতিমধ্যে বিক্ষোভ মিছিলে যোগ দিয়েছে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।
মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকালে আশুলিয়ার চিত্রশাইল এলাকার হাজী ইউনুছ আলী স্কুল এন্ড কলেজের পাশে থাকা আরও কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিচারের দাবিতে আন্দোলনে নামে। এছাড়া একই সময় সাভার উপজেলা পরিষদের সামনে আন্দোলন করেন সাভার ও আশুলিয়া স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ।
 শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো, মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার, অজ্ঞাতনামা আসামীদের গ্রেফতার, প্রধান আসামী ওই ছাত্রের পলাতক পরিবারের সদস্যদের আইনের আওতায় আনা, নিহতের পরিবারকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ, স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্থানীয় ও বাইরের শিক্ষার্থীদের মধ্যকার ভেদাভেদ দূর করতে আইন প্রণয়ন এবং কিশোর গ্যাং ও কিশোর অপরাধ দূর করতে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ।
আন্দোলনরত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারসহ ৬ দফা দাবি করেন। এছাড়া দাবি আদায়ে স্থানীয় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সম্পৃক্ত করতে বিক্ষোভ র‍্যালীসহ গণসংযোগ করছেন তারা।
মিছিল নিয়ে তারা স্থানীয় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দাবি আদায়ে তাদের সাথে ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে সম্পৃক্ত করার লক্ষে গণসংযোগ করেন।
এলাকাবাসী  মো: ইমাম উদ্দিন   বলেন,  শিক্ষককে যে এভাবে মারতে পারে সে তো আমাদেরকেও মেরে ফেলতে পারে। উৎপল কুমার সরকার  খুবই ভালো একজন মানুষ ছিলেন। তিনি আমাদের সম্মান দিয়ে কথা বলতে। তাকে হত্যা করা হলো কিন্তু  অপরাধীরা এখনো গ্রেফতার হলোনা। আমরা চাই দ্রুত তাকে (ওই ছাত্রকে) গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক।
মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা ও আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. এমদাদুল হক বলেন, বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গূরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। আসামীকে গ্রেফতার করতে সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে ধারাবাহিকভাবে অভিযান চালানো হচ্ছে৷
ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের উপ-পরিদশর্ক (কলেজ) মোঃ রবিউল আলম বলেন, আমরা আজ চেয়ারম্যান স্যারের নির্দেশে। প্রতিষ্ঠানটিতে ঘটে জাওয়া বিষয়ে পর্যবেক্ষন করতে এসেছিলাম। এই ঘটনায় মামলাও হয়েছে আমরা আশা করছি দ্রুত আসামি গ্রেফতার হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।