ইউপি সদস্য আলাউদ্দীনের এ কেমন কান্ড!

Print

রাজশাহীর তানোরে মাত্র ৩ লাখ টাকা জরিমানায় আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর ধর্ষণের অভিযোগ ধামাচাপা দিয়ে ধর্ষককে মুক্তি ও জরিমানার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা জানান, আর এই অপকর্মটি করেছেন কামারগা ইউপির সদস্য (মেম্বার) আলাউদ্দীন আলী প্রামানিক। এদিকে জরিমানার টাকা আত্মসাতের দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও এখানো কোনো টাকা ফেরত দেয়নি আলাউদ্দীন। তানোরের কামারগা ইউপির মির্জাপুর গ্রামে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছিল। ভিকটিম পরিবার বিষয়টি তানোর থানা পুলিশকে অবগত করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইউপি সদস্য বলেন, বিভিন্ন মহলে ম্যানেজ করার কথা বলে ইউপি সদস্য (মেম্বার) আলাউদ্দীন আলী এসব টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মগোপণ করেছিল। পরে তিনি ফিরে আসলেও সেই টাকা আর ফেরত দেননি। এদিকে ইউপি সদস্য আলাউদ্দীনের শাস্তির দাবিতে ইউপিবাসি বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে।

সূত্রে জানা গেছে, তানোরের কামারগা ইউপির মির্জাপুর গ্রামের সনজিতের পুত্র রানা ও কার্তিকের পুত্র সবুজ প্রায় ৫ মাস পূর্বে শারীরিক ও বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে এতে ওই কিশোরী অন্তস্বঃত্ত্বা ও তার শারীরিক অসঙ্গতি দেখা দিলে বিষয়টি জানাজানি হয়। ২০১৭ সালে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে সবুজ ও রানাকে আসামি করে তানোর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোনো আসামি গ্রেপ্তার করতে না পারায় ভিকটিম পরিবার মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেকটা আশাহত হয়ে পড়ে। এদিকে ২০১৭ সালের ১৭ই মে বুধবার কামারগা ইউপি সদস্য আলাউদ্দিন আলী বিভিন্ন কৌশলে ভিকটিম পরিবারকে ভয়ভীতি ও এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিয়ে ৩ লাখ টাকায় আপোষের কথা বলে আপোষ নামায় ভিকটিম পরিবারের স্বাক্ষর নিয়ে আসামি রানা ও সবুজকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করে। জরিমানার ৩ লাখ টাকাও ভিকটিম পরিবারকে না দিয়ে আত্মসাৎ করেন বলে ভিকটিম পরিবার অভিযোগ করেছেন। এব্যাপারে জানতে চাইলে ইউপি সদস্য আলাউদ্দীন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এই ঘটনায় বিয়ের ব্যবস্থা করা হয় এবং পুরোহিত ও নেতাদের ম্যানেজ করতে অনেক টাকা খরচ হয়ে যায়, পরে রানা বিয়ে করতে অস্বীকার করায় ভিকটিম পরিবারকে টাকা দেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, থানা থেকে অভিযোগ তুলে নেয়া হলে তাদের টাকা দেয়ার কথা ছিল। এব্যাপারে কাঁমারগা ইউপি চেয়ারম্যান মসলেম উদ্দীন প্রামানিক বলেন, এটা দুঃখজনক ঘটনা একজন ইউপি সদস্য জরিমানার টাকা আত্মসাৎ করেছে। তিনি এই ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 35 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com