ইছামতি নদী একটি ধানক্ষেত!

Print
ইছামতি নদীর দাইদপুর অংশে নদীতে বোরো ধান চাষ করা হচ্ছে

এক সময়ের খরস্রোতা নদী ইছামতি এখন সরু খালে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে নদীটির দিঘিরপাড়, দাউদপুর, বাড়ুয়াখালীসহ বিভিন্ন অংশ আবাদি জমি বানিয়ে রীতিমত বোরো ধান চাষ করা হচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে অপরিকল্পিতভাবে মাটি-বালু উত্তোলনের কারণে ইছামতির গতিপথ পরিবর্তন হয়ে গেছে।

ঢাকার দোহার, নবাবগঞ্জ, মানিকগঞ্জের হরিরামপুর এবং মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান ও শ্রীনগর উপজেলা দিয়ে প্রবাহিত নদীটির বিভিন্ন অংশ এখন বর্জ্যে ভরপুর। হাট-বাজার ও ক্লিনিকসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বর্জ্য পড়ে নদীর বিভিন্ন অংশের পানি এখন ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

স্থানীয় এক কৃষক মো. আসলাম খাঁন বলেন, প্রমত্তা ইছামতি নদী দিয়ে এক সময় মহাজনী নৌকা ও স্টিমার চলাচল করত। নদীতে জেলেরা মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতেন। বর্তমানে নদীর অধিকাংশ স্থানে পলি পড়ে নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে গেছে। ফলে বিভিন্ন প্রজাতির দেশীয় মাছ ও জলজপ্রাণীর নদীতে বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। জেলেরা পেশা পরির্বতন করে অন্য পেশা গ্রহণ করেছে।

কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হোসেন বলেন, ইছামতির কাশিয়াখালী বেড়িবাঁধে একটি সুইস গেট নির্মাণ হলেই আবার জীবন্ত হয়ে উঠবে নদী। সরকারকে এ বিষয়টি গুরুত্ব দিতে হবে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 112 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com