উন্নয়নের ২ কোটি টাকা ছাত্রলীগকে দেওয়ার অভিযোগ জাবি ভিসির বিরুদ্ধে

Print

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের প্রথম ধাপে পাঁচটি নতুন আবাসিক হলের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে। এতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে সাড়ে ৪শ’ কোটি টাকা। আর এই টাকা থেকে ঈদুল আজহার আগে ছাত্রলীগকে দুই কোটি টাকা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, চলমান ক্যাম্পাস উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে বাধা দেবে না, এই প্রতিশ্রুতিতে ছাত্রলীগের তিনটি গ্রুপকে এই টাকা দেয়া হয়েছে।

শাখা ছাত্রলীগের অন্তত ১৫ নেতাকর্মী বিষয়টি স্বীকার করে জানিয়েছেন, এক কোটি টাকা করে ছাত্রলীগের তিনটি গ্রুপকে দেয়া দেয়া হয়েছে এ টাকা। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগকে ১ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে। এ টাকার ভাগ তারাও পেয়েছেন। ছাত্রলীগের সাধারণ কর্মীরা ৫ থেকে ১ হাজার টাকা করে ভাগ পেয়েছেন। আর পদধারী নেতারা পেয়েছেন ৫০ থেকে ১ লাখ টাকা করে।

ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যেই নয় ক্যাম্পাসের সর্বত্র এখন আলোচিত বিষয় এই দুই কোটি টাকার কে কত করে ভাগ পেয়েছেন! সে টাকা ভাগ-বাটোয়ারা বিষয়ে গত ৯ আগস্ট ছাত্রলীগের সঙ্গে ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বৈঠক হয়েছে বলে কথা শোনা যাচ্ছে।

বিপুল পরিমাণ এই টাকার ভাগ-বাটোয়ারা ঘটনাকে ধিক্কার জানিয়ে বিভিন্ন ধরনের বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) তারা এক মশাল মিছিল করে তিন দফা দাবি পেশ করেছে শিক্ষার্থীরা।

দাবি তিনটি হলো- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের পাশের হলের জায়গা স্থানান্তর করে পুনর্বিন্যাস সাধন করতে হবে, প্রকল্প নিয়ে যে দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে তার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য বিচার বিভাগীয় তদন্ত করতে হবে, মাস্টারপ্লানের পুনর্বিন্যাস করে প্রকল্পের বাকি কাজগুলো শুরু করতে হবে। এ তিন দাবি মানা না হলে আগামী ৩ সেপ্টেম্বর ভিসির কার্যালয় অবরোধের ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

এদিকে ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম ছাত্রলীগের সঙ্গে টাকা ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে আলোচনার অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কিছু সমস্যার ব্যাপারে কথা বলতে সংগঠনটির সভাপতিসহ অন্যরা আমার কাছে এসেছিলেন। তার মানে এই নয় যে, এখানে অন্য কোনো ঘটনা রয়েছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 53 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com