এই বিশ্বকাপই যাদের শেষ বিশ্বকাপ

Print

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হতে আর বাকি মাত্র ২ দিন বাকি। দিন যত ঘনিয়ে আসছে ক্রিকেট ভক্তদের উন্মাদনাও ততই বাড়ছে।ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে অনুষ্ঠেয় এই দ্বাদশ আসরের মধ্য দিয়ে কারো ক্যারিয়ার হতে যাচ্ছে শুরু আবার কারও শেষের পথে। আজ এমন কিছু তারকা ক্রিকেটারদের নিয়ে কথা বলবো যাদের এই বিশ্বকাপই ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ।

চলুন তাদের নামটা একটু জেনে নেই :

মাশরাফি বিন মর্তুজা (বাংলাদেশ) : বাংলাদেশ ক্রিকেটের উজ্জ্বল নক্ষত্র তিনি। এখন পর্যন্ত ইনজুরির কারণে হার মানেননি সফলতম টাইগার এই কাপ্তান। ক্যারিয়ারে দুই হাঁটুতে অস্ত্রোপচার করেছেন সাতবার আর ছোট-বড় মিলিয়ে মোট অস্ত্রোপচারের সংখ্যাও ১৩ বারেরও বেশি। তারপরও ইনজুরির কাছে মাথা নত করেননি ম্যাশ। এখনো ইনজুরি নিয়ে খেলে যাচ্ছেন অনবদ্য। ঘরের মাঠে ২০১১ বিশ্বকাপে ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি তিনি কিন্তু ২০১৫ বিশ্বকাপে অধিনায়ক হয়ে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি। আসন্ন বিশ্বকাপটি তার চতুর্থ বিশ্বকাপ। তবে অধিনায়ক হিসেবে দ্বিতীয় বিশ্বকাপ। অধিনায়ক হিসেবে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ৭৬টি ওয়ানডে ম্যাচে। যার মধ্যে তার নেতৃত্ব থাকাকালীন বাংলাদেশ জয় পেয়েছে ৪৩ টি ম্যাচে। দেশের হয়ে এখন পর্যন্ত ২০৯ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন তিনি। যার মধ্যে উইকেট পেয়েছেন ২৬৫টি। এই বিশ্বকাপটি টাইগার কাপ্তানের শেষ বিশ্বকাপ।

ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) : সাত মাস পর গত ফেব্রুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে দলে ফেরেন ক্রিস গেইল। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলা ওই সিরিজের সময় এ বিগহিটার জানান, বিশ্বকাপই হতে পারে তার শেষ বিশ্বকাপ।

আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ের একনম্বর দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চার ইনিংসে দুই সেঞ্চুরি ও দুই হাফসেঞ্চুরিসহ করেন ৪২৪ রান। রেকর্ড গড়া সর্বোচ্চ পঞ্চম বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। তিনি প্রথম বিশ্বকাপ খেলেন ২০০৩ সালে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এখন পর্যন্ত ২৮৯ টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন তিনি। যার মধ্যে রান করেছেন ১০ হাজার ১৫১। আর সেঞ্চুরি করেছেন ২৫টি এবং হাফ সেঞ্চুরি আছে ৫১টি। ১৯৭৯ সালের পর আবার বিশ্বকাপ ট্রফি উচিয়ে ধরতে এবং তার বিদায় বেলায় ইংল্যান্ডের মাটিতে গেইলের এই রূপটা দেখতে চাইছে ক্যারিবীয়রা।

মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত) : ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ খেলে সবচেয়ে অভিজ্ঞতম ক্রিকেটার হয়ে যাচ্ছেন ভারতের সাবেক সফল অধিনায়ক ও উইকেট-রক্ষক ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। এখন পর্যন্ত ৩৪১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলা ধোনি রান করেছে ১০ হাজার ৫০০। তার সর্বোচ্চ সংগ্রহ ১৮৫ (অপরাজিত)। তিনি এখন পর্যন্ত ১০টি সেঞ্চুরি ও ৭১টি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন। ধোনির নেতৃত্বে দুটি বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। মাশরাফির মতোই ক্যারিয়ারের চতুর্থ বিশ্বকাপ খেলবেন এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপটিই হবে তার শেষ বিশ্বকাপ।

শোয়েব মালিক (পাকিস্তান) : ১৯৯৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচে অভিষেক হয় এই তারকা ক্রিকেটারের। এই বর্ষীয়ান অলরাউন্ডার অনেক আগেই ঘোষণা দিয়েছেন ২০১৯ বিশ্বকাপ খেলে ওয়ানডে ফরম্যাট থেকে অবসর নেবেন। ৩৭ বয়সি এই পাক অলরাউন্ডার এখন পর্যন্ত ২৮২টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে যার মধ্যে রান করেছে ৭ হাজার ৪৮১। আর বল হাতে উইকেট নিয়েছেন ১৫৬টি।

মোহাম্মদ হাফিজ (পাকিস্তান) : পাকিস্তানের অন্যতম নির্ভরযোগ্য অলরাউন্ডার তিনি। ব্যাটিং কিংবা বোলিং, ম্যাচ জয়ে তার পারফরম্যান্স ছিলো চোখে পড়ার মতো। সহ-অধিনায়ক হিসেবে দলকে নেতৃত্বও দিয়েছেন হাফিজ। তবে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ এর মধ্যে দিয়ে তার ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন তিনি। এখন পর্যন্ত পাকিস্তানের হয়ে ২০৮ ওয়ানডে ম্যাচ খেলে রান করেছেন ৬ হাজার ৩০২। যার মধ্যে ১১টি সেঞ্চুরি ও ৫১টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। আর বল হাতে উইকেট শিকার করেছে ১৩৭টি।

লাসিথ মালিঙ্গা (শ্রীলংকা) : লংকান ক্রিকেট দলের অন্যতম বোলার মালিঙ্গা। বিশ্বকাপের আগেই গুঞ্জন ছিলো হয়তো ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের আগেই অবসরে যাবেন এই স্পীড স্টার কিন্তু সকল গুঞ্জন পিছিনে ফেলে ফিরলেন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে। বিশ্বকাপের মত আসরে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ২২টি ম্যাচ। আর শ্রীলংকার হয়ে ২১৮ ওয়ানডেতে ম্যাচ উইকেট নিয়েছে ৩২২টি। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ হবে মালিঙ্গার শেষ বিশ্বকাপ।

জেপি ডুমিনি (সাউথ আফ্রিকা) : ২০০৪ সালে ওয়ানডে দলে অভিশেক হয় ডুমিনির। কিন্তু তার ক্যারিয়ারের অনেকটা সময় কেটেছে ইনজুরিতে। তবুও সাউথ আফ্রিকার সেরা দশ রান সংগ্রহের তালিকায় যায়গা করে নিয়েছেন তিনি। প্রোটিয়াদের হয়ে এখন পর্যন্ত ১৯৪ ওয়ানডেতে রান করেছেন ৫ হাজার ৪৭। তবে তিনি আর মাত্র ৬টি ম্যাচ খেললেই সাউথ আফ্রিকার সপ্তম ক্রিকেটার হিসেবে ২০০ ম্যাচের রেকর্ড ছুবেন। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের পরেই ওয়ানডেকে বিদায় জানাবেন এই ক্রিকেটার।

ইমরান তাহির (সাউথ আফ্রিকা) : বয়োজ্যেষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ইমরান তাহির। বয়স তার চল্লিশ ছুঁই ছুঁই। ১৯৮০ আগে জন্ম নেওয়া দুই ক্রিকেটার এবার বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছেন। একজন হলেন ইমরান তাহির অপর জন হলেন ক্রিস গেইল। এ যুগের অন্যতম সেরা লেগ স্পিনার ইমরান তাহির এখন পর্যন্ত ৯৫টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে উইকেট নিয়েছেন ১৬৫টি। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে নিজের সেরাটা দিয়েই ওয়নাডেকে বিদায় জানাবেন তিনি।

ডেল স্টেইন (সাউথ আফ্রিকা) : বিশ্বের দ্রুততম ও সবচেয়ে ভয়ঙ্কর বোলার তিনি। চোটের সঙ্গে লড়াই করতে করতে এক প্রকার বিরক্ত এই প্রোটিয়া বোলার। এবি ডি ভিলিয়ার্সের পর আরও এক নক্ষত্রের পতনের পথে। ২০১৯ বিশ্বকাপ খেলেই ওয়ানডে ফরমেটেকে বিদায় জানাবে স্টেইন। সাউথ আফ্রিকার হয়ে এখন পর্যন্ত ১২৫টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ১৯৬টি উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 49 বার)


Print
bdsaradin24.com