এক মাস খেটে একটি জামদানি

Print

 

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জের এই এলাকা থেকেই একসময় জামদানি শাড়ি তৈরি শুরু হয়েছিল। এরই ধারাবাহিকতায় সরকার এখানে একটি জামদানিপল্লী গড়ে তোলে। এই জামদানিপল্লীতে ৪১৯টি প্লট রয়েছে। এসব প্লটে জামদানি তৈরি হয়। চার হাজার শ্রমিক দুই হাজার তাঁতে সপ্তাহে ৫০০ থেকে ৬০০টি জামদানি শাড়ি তৈরি করে। এসব শাড়ি দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রির পাশাপাশি ভারতসহ বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে।

জামদানিশিল্পী সোহেলের বাড়ি কিশোরগঞ্জের চোরাপল্লী। সোহেল বলল, ‘আমাদের খুব অভাব। এ জন্য এখানে এসে জামদানি শাড়ি তৈরি করছি।’ তাঁতের মহাজন ইউনুসের ঘরে নিপুণ হাতে আঙুল তেরসি নকশার জামদানি তৈরি করছিল সাদিয়া। তার বাড়ি নরসিংদী। সে চার বছর ধরে জামদানি তৈরির কাজ করছে। সাদিয়া বলল, ‘আমি শাড়ি তৈরি করে সপ্তাহে এক হাজার ২০০ টাকা পারিশ্রমিক পাই। তাতেই আমাদের সংসার চলে।’ বাজিতপুর উপজেলার মিরাকান্দি গ্রামের অমিত হোসেন দুই বছর ধরে জামদানি তৈরির কাজ করছে। সে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়েছে। বাবলু মিয়ার ঘরে বাহারি জামদানি তৈরির সময় কথা হয় অমিত হোসেনের সঙ্গে। সে বলল, ‘আমি অনেক দামি জামদানি তৈরি করি। একটি জামদানি তৈরিতে দুজনের প্রায় এক মাস লেগে যায়। তাতে পারিশ্রমিক পাই আট হাজার টাকা।’ মহাজন বাবলু মিয়া বললেন, ‘এই জামদানি ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি হবে। খুব মন দিয়ে এই শাড়ি তৈরি করা হচ্ছে।’

অমিত হোসেনের মতো কিশোরগঞ্জের আরমান, জুয়েল, স্নিগ্ধা, খোকনসহ কয়েক শ শ্রমিক জামদানিপল্লীতে কাজ করছে। কথা হয় জামদানি শাড়ির প্রবীণ ব্যবসায়ী হাজি আজগর আলীর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘এখানকার শ্রমিকরা উন্নতমানের জামদানি তৈরি করতে পারে। তাদের হাতে ধরে জামদানির কাজ শেখানো হয়। যে কারণে তারা তাদের দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতার ফুল জামদানির ক্যানভাসে ফুটিয়ে তুলতে পারে।’

 

 

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 21 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com