‘এক রুমের’ কলেজ এমপিওভুক্ত

Print

নেত্রকোনার মদন উপজেলায় নিজস্ব অবকাঠামো ছাড়া নামসর্বস্ব ‘জনতা কারিগরি ও বাণিজ্য কলেজ’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলায় এমপিওভুক্ত হওয়ার যোগ্য বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থাকলেও সেগুলো না করে নিজস্ব জায়গা নেই এমন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছে। ভুয়া প্রতিষ্ঠানের এমপিও বাতিল করে এর সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির দাবি করেছেন তারা।

প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা অনুযায়ী নিজস্ব জায়গা-জমি কিংবা অবকাঠামো না থাকলেও এমপিওভুক্ত হয়েছে জনতা কারিগরি ও বাণিজ্য কলেজ। প্রতিষ্ঠানটির অবস্থান দেখানো হয়েছে মদন উপজেলার বালালি এলাকায়। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। এই নামে এলাকায় কলেজ আছে জানেন না খোদ এলাকাবাসী। কারণ কলেজ প্রতিষ্ঠা হওয়া তো দূরের কথা এই নামে কলেজের কোনো জায়গা-জমি কিংবা অবকাঠামো নেই।

এদিকে, ২৫ বছরের পুরনো তিনতলা ভবনসহ অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে ওই এলাকায়। কিন্তু এসব প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়নি। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে ক্ষোভ ও অসন্তোষ।

সরেজমিনে দেখা যায়, বালালি এলাকায় ‘জনতা কারিগরি ও বাণিজ্য কলেজ’ নামে কোনো প্রতিষ্ঠান নেই। তবে ওই এলাকায় ‘বালালি বাঘমারা শাহজাহান মহাবিদ্যালয়’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠা করেছেন প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা লে. কর্নেল শাহজাহান উদ্দিন ভুঁইয়া। হাওরের পাশে বিশাল জায়গা, তিনতলা ভবন বিশিষ্ট অবকাঠামো, দুই শতাধিক শিক্ষার্থী, প্রয়োজনীয় শিক্ষক, পাশের হার সন্তোষজনক হওয়া সত্ত্বেও এই প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়নি।

বালালি বাঘমারা শাহজাহান মহাবিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও মদন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রুকন উদ্দিন, বালালি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা জসিম উদ্দিন, মজিবুর রহমান, হাবিবুর রহমান, সাইদুল হকসহ অন্তত ১২ জন বলেন, ‘জনতা কারিগরি ও বাণিজ্য কলেজ’ নামে এই এলাকায় কোনো প্রতিষ্ঠান নেই।

শুনেছি বালালি এলাকার আব্দুল আজিজ নামে এক ব্যক্তির ‘জনতা কারিগরি ও বাণিজ্য কলেজ’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান আছে। প্রতিষ্ঠানটি মদন পৌর শহরের একটি এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে মাঝেমধ্যে কার্যক্রম চালায়। আব্দুল আজিজ নেত্রকোনা শহরের খতিবনগুয়া এলাকায় নেত্রকোনা কারিগরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 69 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com