এবার আমেরিকায় জাতীয় সঙ্গীত পরিবর্তন নিয়ে যা বললেন নোবেল

Print

জি বাংলা টেলিভিশনের সংগীত রিয়েলিটি শো ‘সা রে গা মা পা ২০১৯’ এ অংশ নিয়ে পুরো শো জুড়েই আলোচনায় ছিলেন বাংলাদেশের ছেলে নোবেল। এখানে জনপ্রিয় শিল্পীদের একের পর এক গান গেয়ে আলোচনায় এসেছেন তিনি। তার গায়কীতে শ্রোতারা মুগ্ধ হয়েছেন। তবে বিচারক ও দর্শকদের প্রশংসা পেয়েও ফাইনালে বিজয়ের মুকুট পাননি তিনি। দ্বিতীয় রানার আপ হয়ে সন্তুষ্টু থাকতে হয়েছে তাকে।

‘সা রে গা মা পা’র মঞ্চে দাঁড়িয়ে নোবেল শুধু প্রশংসা কুড়িয়েছেন তা নয়, নিন্দিতও হয়েছেন। গান কাভার করার সময় গীতিকার সুরকারের নাম না বলায় সমালোচিত হয়েছেন কয়েকবার। আইয়ুব বাচ্চু, জেমস, কুমার বিশ্বজিৎ এর গান গেয়ে গেয়েছেন, অথচ গানের পেছনের মানুষদের নাম বলেননি। এমন ভুল একাধিকবার করেছিলেন মাঈনুল আহসান নোবেল।

অতি সম্প্রতি একটি লাইভ সাক্ষাৎকারে জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে মন্তব্য করে নতুন বিতর্কের জন্ম দেন নোবেল। তার মন্তব্য শুনে অনেকেই তার উপর অভিযোগ তুলেছেন ‘জাতীয় সঙ্গীতকে অপমান করেছেন নোবেল’।

সেই সাক্ষাৎকারে নোবেল বলেছেন, ‘রবীন্দ্রনাথের লেখা জাতীয় সঙ্গীত ‘আমার সোনার বাংলা’ যতটা না দেশকে এক্সপ্লেইন করে তারচেয়ে কয়েক হাজার গুণে এক্সপ্লেইন করে প্রিন্স মাহমুদ স্যারের লেখা ‘বাংলাদেশ’ গানটি। এই মন্তব্যে নোবেল জাতীয় সঙ্গীত পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন দাবি করে তার সমালোচনায় মেতে উঠে নেটিজেনরা।

তবে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত বদলের দাবি তিনি করেননি এমনটাই দাবি নোবেলের। এই প্রসঙ্গে আমেরিকার ওয়াশিংটন ডিসিতে তিনি গণমাধ্যমের প্রশ্নের মুখোমুখি হন। গেল শুক্রবার রাতে সেখানে একটি লাইভ অনুষ্ঠান করতে গিয়ে মন্তব্য করেন তিনি, কখনই বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবর্তন করার কথা বলেননি। তার মন্তব্য নিয়ে অযথা কাঁটাছেড়া করা হচ্ছে। এ নিয়ে গত কয়েকদিনের মধ্যে দুইবার নোবেল এই অভিযোগ অস্বীকার করলেন।

শুক্রবার রাতে এক এনজিও একাত্তর ফাউন্ডেশন ও বন্ধন অ্যাসোসিয়েশনে যৌথ আয়োজনে ভার্জিনিয়ার নোভা আলেজান্দ্রিয়া ক্যাম্পাসে ‘নোবেল লাইভ কনসার্ট’-এ গান গাইতে গিয়ে নোবেল বলেন, ‘কখনোই বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ‘আমার সোনার বাংলা’ পালটে দেওয়ার কথা বলিনি আমি। এ নিয়ে অযথা রটনা হচ্ছে।’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 39 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com