কথা রাখেননি সেতুমন্ত্রী

Print

দীর্ঘ সাত বছরেও হয়নি সড়কের সংস্কার। উঠে গেছে সড়কের কার্পেটিং। পিচ ও ইট উঠে সড়কে তৈরি হয়েছে বড় বড় গর্ত। কর্দমাক্ত হয়ে গেছে পুরো সড়ক। দেখে মনে হয় সড়ক নয় যেন ধানের খেত। এই সড়ক দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে যাত্রীদের পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি। কক্সবাজারের টেকনাফ-শাহপরীর দ্বীপ সড়কের বর্তমান অবস্থা এটি।

২০১২ সালে দ্বীপের পশ্চিমের বেড়িবাঁধ বিলীন হয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে সড়কের হারিয়াখালী থেকে শাহপরীর দ্বীপ উত্তরপাড়া পর্যন্ত চার কিলোমিটার বিলীন হয়ে যায়। বেড়িবাঁধ মেরামত চলমান থাকলেও স্লুইসগেট দিয়ে ঢোকা পানিতে ডুবে যায় সড়ক। ফলে নৌকাতেই চলাচল ভরসা এলাকাবাসীর। গত সাত বছরেও সড়কটির সংস্কার না হওয়ায় ভোগান্তি কাটছে না এলাকাবাসীর।

দ্বীপের বাসিন্দারা জানান, বেড়িবাঁধ ভাঙনের পর থেকে শাহপরীর দ্বীপে প্রায় অর্ধলক্ষাধিক মানুষ প্রতিনিয়ত জোয়ার- ভাটার বৃত্তে বন্দি হয়ে আছেন। চার কিলোমিটার সড়ক নিয়মিত জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় নৌকাই একমাত্র ভরসা দ্বীপবাসীর। জোয়ারের পানি নেমে গেলে ক্ষতবিক্ষত সড়ক পায়ে মাড়ানো ছাড়া বিকল্প পথ নেই।

স্থানীয় কলেজ শিক্ষার্থী আফরোজা আকতার রোজা বলেন, জোয়ারের পানি স্লুইসগেট দিয়ে ঢুকলে সড়কটি প্লাবিত হয়। তখন নৌকায় চলাচল করতে হয়। ভাটায় চার কিলোমিটার পথ হেঁটে যেতে হয়। সাত বছর এভাবেই পার করছি আমরা।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 41 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com