কর্মক্ষেত্রে প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকা যে কারণে জরুরী

Print

বাংলাদেশের সরকারি অফিসগুলোতে কর্মরতরা অনেকেই জানিয়েছেন তারা তাদের বেতনের সাথে চিকিৎসা ভাতা পেয়ে থাকেন তবে অফিসে কেউ অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা ছাড়া আর কোনো ব্যবস্থা নেয়ার সুযোগ বা ব্যবস্থা কোনোটাই নেই।

“হঠাৎ অসুস্থ হলে ছুটি নিয়ে বাসায় বা ডাক্তারের কাছে যেতে পারি। কিংবা বেশী অসুস্থ হলে সহকর্মীরা কেউ হাসপাতালে নিয়ে যাবেন হয়তো। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে একে অপরকে তাৎক্ষনিক স্বাস্থ্য সহায়তা কিভাবে করা যায় সেটি শেখার সুযোগই হয়নি,” বলছিলেন সরকারের একজন উপসচিব।

তিনি বলেন, “যেমন ধরুন কারও হৃৎস্পন্দন বন্ধ হলে বা কমে গেলে কিংবা শ্বাসপ্রশ্বাস সাময়িক কমে গেলে তাকে সিপিআর দিয়ে সহায়তা করা যায় এবং এটা জানা থাকলে যে কেউ করতে পারে সেটা বিদেশে ভিন্ন একটা প্রশিক্ষণের সময় জেনেছিলাম”।

কার্ডিও-পালমোনারি রিসাসিটেশন বা সিপিআরকে বলা হয় জীবন রক্ষাকারী একটি কৌশল। হার্ট অ্যাটাক বা বিভিন্ন কারণে শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা হলে জরুরি প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে সিপিআর দেয়াটা বিশ্বজুড়ে প্রচলিত।

অনেক প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিখিয়ে থাকেন কিভাবে সিপিআর দেয়া হয়।

ঢাকার উত্তরায় একটি বেসরকারি ব্যাংকে কাজ করার সময় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে এক নারী কর্মকর্তার মৃত্যুর দৃশ্য সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ার পর সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ওই কর্মকর্তা অসুস্থ হয়ে পড়ে গেলে সহকর্মীরা তাকে উঠে বসানোর চেষ্টা করলেও প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা দিতে কেউ এগিয়ে আসেনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই অনেকে লিখছেন যে ওই নারীকে সিপিআর দেয়া সম্ভব হলে তাৎক্ষনিক ভাবে হয়তো তা কাজে দিতো বলে মনে করছেন তারা কারণ সিপিআর দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার আগে ব্যক্তির রক্ত চলাচল ও শ্বাস প্রশ্বাস চালু রাখতে সহায়তা করে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 32 বার)


Print
bdsaradin24.com