কর্মক্ষেত্রে হাসুন , না হাসলে ‘চাকরি থাকবে না’!

Print

কর্মক্ষেত্রে হাসেন না? হাসলেও মেপে হাসেন? চলে যেতে পারে আপনার চাকরিটাই! ভাবছেন এ আবার কেমন কথা। তবে এমন উদ্যোগই নিয়েছে জাপানের একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। সফটওয়্যারের মাধ্যমে তারা মেপে নিচ্ছে কর্মক্ষেত্রে কর্মীদের হাসির মাত্রা। গোমড়া মুখো কর্মীদের জানাচ্ছেন বিদায়।

ফেসিয়াল রেকগনিশন প্রযুক্তিতে বানানো এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে দেখা হবে কর্মীরা কাজের সময় হাসছেন কিনা। ই-কামট্রু নামের এ প্রতিষ্ঠানটি গতমাসে তাদের কর্মতালিকা (ওয়ার্কলগ) ও কর্মীদের হাজিরা ব্যবস্থায় (অ্যাটেনডেন্স সিসটেমে) ফেসিয়াল রিকগনিশন প্রযুক্তি ব্যবহারের ঘোষণা দিয়েছিল।

এ সিস্টেমের মাধ্যমে কর্মীদের কর্মক্ষেত্রে আসার পর এবং কাজ শেষে চলে যাওয়ার সময় তাদের হাসি মেপে দেখা হবে। এমনকি কাজের শুরুতে যে চওড়া হাসিটুকু মুখে নিয়ে কর্মীরা কাজ শুরু করছেন তা শেষ অব্দি ধরে রাখতে পারছেন কিনা তাও বুঝতে পারবে এ প্রযুক্তি।

একটি ট্যাবলেটে নিজের পরিচয় দেওয়ার পর ওই কর্মীর তাৎক্ষণিক একটি ছবি ধারণ করে কোম্পানির তথ্যভাণ্ডারের সঙ্গে মিলিয়ে নেবে সফটওয়্যারটি। ছবি তোলার পর কর্মীর ঠোঁটের কোণা কতটুকু বিস্তৃত হলো তার ওপরই বোঝা যাবে কর্মীর ‘হাসিমুখ’ চেহারা। যত বেশি হাসিমুখ ততবেশি নাম্বার দেওয়া হবে কর্মীদের।

দীর্ঘদিন গোমড়া মুখে থাকা কর্মীদের জানানো হবে, ‘আপনি যথেষ্ট হাসিখুশি নন’। আর এর মানে হল ওই কর্মী প্রতিষ্ঠানে কাজের সুযোগ হারাচ্ছেন।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, “কাজ শুরুর আগে এই সিস্টেমের ক্যামেরার সামনে হাস্যোজ্জ্বল মুখে দাঁড়াতে হবে। তার মাধ্যমে মাপা হবে তার হাসি।” এমন সিস্টেম বার, রেস্তোরাঁ এবং অন্য সব সেবাদানকারী ইন্ডাস্ট্রিতেও চালু করা দরকার বলে দাবি করেন তারা।

ব্রিটিশ পত্রিকা দ্য সান তাদের মঙ্গলবারের এক প্রতিবেদনে জানায়, কর্মক্ষেত্রে এমন অভিনব ব্যবস্থা চালু করায় জাপানে ই-কামট্রু প্রতিষ্ঠানটিই প্রথম নয়। ২০০৯ সালে কেইহিং এক্সপ্রেস রেলওয়ে কোম্পানিও একইভাবে কর্মীদের হাসি মেপে নিত ফেসিয়াল রিকগনিশন অ্যালগরিদমে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 165 বার)


Print
bdsaradin24.com