কলারোয়ায় প্রশংসিত চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু

Print

মোঃ ইমরান সরদার:সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার একদিকে উপজেলা চেয়ারম্যান এবং অন্যদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দুই দুইবার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাফল্যের সাথে দায়িত্ব পালন করার পর এই প্রথমবারের মতো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন দায়িত্ব গ্রহণ করার পর থেকে তিনি উপজেলা জুড়ে উনয়নের কর্মকান্ড ছড়িয়ে দিয়েছেন।

রাস্তাঘাট অবকাঠামোগত উন্নয়ন, ভবন নির্মাণ সংস্কার জলাবদ্ধতা নিরসন বিভিন্ন ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোয় আর্থিক সহায়তা প্রদান প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের পাশে ছুটে যাওয়া ও সরকারি অবদান সহ নিজ উদ্যোগে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান ইত্যাদি সকল বিষয়ে তাঁর উপস্থিতির প্রদান এলাকায় প্রশংসিত হয়েছে।

অপরদিকে তার সদাচারণ, দায়িত্বশীলতা, কর্তব্যপরায়ণতা, বিচার সালিশের সুবিচার প্রদান, অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠ যা মানুষকে আকৃষ্ট করে তোলে। এলাকার সাধারণ মানুষ এবং ব্যবসায়ীরা নির্বিঘ্নে তাদের ব্যবসা-বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন। চাঁদা প্রদানের প্রবণতা নেই বললেই চলে। ইভটিজিং বন্ধে উপজেলার পক্ষ থেকে তিনি সার্বক্ষণিক প্রচার মাইকিং সহ পুলিশ প্রশাসনকে সতর্কতার নির্দেশনা দিয়ে রেখেছেন।

উপরোল্লিখিত তথ্যের ভিত্তিতে সরেজমিনে এই এলাকায় এর সত্যতা জানতে গেলে কওসার সরদার(৫০)নামে একজন বলেন, আমাদের এলাকায় উন্নয়নের ক্ষেত্রে চেয়ারম্যানের অনেক বড় অবদান রয়েছে। এখানে কেউ সমস্যায় পড়লে চেয়ারম্যানের কাছে সংবাদ পৌঁছানো মাত্রই সাথে সাথে সেই বিষয়ের উপরে পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। তিনি একজন সৎ নিষ্ঠাবান এবং সুবিচারক।

সোনাবাড়িয়া গ্রামের কুলসুম বিবির (৫৫) কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার সংসার চালাতে অনেক কষ্ট হতো যার কারণে চেয়ারম্যান সাহেবের কাছে গিয়ে আমার আর্থিক অবস্থার কথা খুলে বললে তিনি আমাকে একটা বিধবা কাট করে দেন। প্রতিমাসে এই কাজ থেকে যে টাকা পাই তাতে আমার সংসারের অনেক উপকার আসে। আমি চেয়ারম্যানের দীর্ঘায়ু কামনা করি।

স্থানীয় বেশ কিছু সাধারন জনগন এ প্রতিনিধিকে বলেন, এখানে আগের মত চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, ভূমি দখল, লুটপাট, ঘের দখল, পুকুরের মাছ লুটপাট,অকারনে হয়রানি মূলক মামলা মোকদ্দমা হয়না। সন্ত্রাস ও দুর্নীতি অনেকাংশে হ্রাস পেয়েছে সবকিছু সম্ভব হয়েছে আমিনুর ইসলাম লাল্টু কঠোর পদক্ষেপের কারণ।এলাকার সাধারন জনগন তার উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।

এবিষয়ে কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টুর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমি ছাত্র জিবন থেকে কোন অন্যায় কাজের সাথে সহমত পোষন করিনাই। সব সময় শেখ মুজিবুর রহমান এর আর্দশ মেনে চলেছি। সব সময় অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছি এবং যতদিন বেঁচে থাকবো ততদিন এভাবে কাজ করে যাব। শেখ হাসিনার উন্নয়নের রেল গাড়ি আমাদের কলারোয় উপজেলায় অনেক কিছু দিয়েছে এবং কলারোয়া বাসি ধন্য আওয়ামীলীগ সরকারের জন্য। আমি ১৯৮৭ সাল থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রাজনৈতিক শুরু করি। সেখান থেকে কলারোয়া বাসির ভোটে আজ আমি কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 33 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com