কোচ ছাড়া আর কতদিন

Print

তার একটি টুইট সেই সময় খুব শোরগোল ফেলেছিল। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মিরপুর টেস্টের আগের রাতে চন্ডিকা হাথুরুসিংহে লিখেছিলেন- ‘কঠিন এক পরিস্থিতি, একটা জাতির আবেগ নাকি টিম কম্বিনেশন…।’ টুইটারে শব্দসংখ্যা নির্ধারিত থাকায় বাকিটুকু তিনি লেখেননি। কিন্তু বুঝতে বাকি ছিল না কারও, সেই সময় মুমিনুলকে স্কোয়াডের বাইরে রাখায় রীতিমতো জনআক্রোশের মুখে পড়তে হয়েছিল তাকে।

মাশরাফির টি২০ থেকে অবসর নিয়েও কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হয়েছিল তাকে। এ রকম নাসিরকে না নিয়ে কেন সাব্বির? এনামুলকে না ডেকে কেন সৌম্য? অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে অমুক পিচ কেন? ভারতের বিপক্ষে তিন পেসার কেন? বাংলাদেশের কোচ থাকাকালে এ প্রশ্নগুলোই তীর হয়ে ছুটত তার দিকে। দল নির্বাচনে তার স্বাধীনতাকে ‘স্বেচ্ছাচারিতা’, একাদশ বাছাইয়ে তার সিদ্ধান্তকে ‘ক্ষমতার অপব্যবহার’ বলে সমর্থকদের কাছে রীতিমতো খলনায়ক হয়ে গিয়েছিলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। যেটা এতটাই তিক্ততা সৃষ্টি করেছিল যে, আড়াই বছরে দলের সাফল্যের কৃতিত্ব কিছুতেই যেন হাথুরুকে দিতে রাজি ছিল না টাইগার সমর্থকদের একটি বড় অংশ।

শেষ পর্যন্ত তার বিদায়ে পর যেন স্বস্তি ফিরে এসেছিল অনেকের মধ্যে! সোশ্যাল মিডিয়ার খুশিতে গা ভাসিয়ে দিয়েছিল বিসিবিও। কোচের প্রশ্নে বিসিবিপ্রধান নাজুমল হাসান পাপন ঘোষণা দিয়েই জানিয়ে দেন, ভালো কোচ না পাওয়া পর্যন্ত দলের সিনিয়ররাই সেই দায়িত্ব পালন করবেন।

রিচার্ড পাইবাস আর ফিল সিমন্সের ঢাকায় ডেকে সাক্ষাৎকার নিয়েও শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে যান বিসিবিপ্রধান। কেননা সিনিয়রদের সঙ্গে কথা বলে তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, ভালো কোনো বিদেশি কোচ যতদিন না পাওয়া যায় ততদিন খালেদ মাহমুদ সুজনই থাকুক টিম ডিরেক্টর হিসেবে।

কিন্তু প্রথমে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ, তারপর টেস্ট এবং টি২০- ধীরে ধীরে পরিস্কার হয়ে গেছে, প্রধান কোচ ছাড়া কোনো দল এভাবে চলতে পারে না। লংকার বিপক্ষে লম্বা এই সিরিজে বিভিন্নভাবে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের পরিকল্পনার কাছে মার খেয়েছেন ঘরের ছেলেরা। নির্বাচকরাও বিভ্রান্ত হয়েছেন বিভিন্নভাবে। গোটা সিরিজে মোট ৩৩ ক্রিকেটারকে ডেকে ২৮ জনকে খেলোনো হয়েছে! চেষ্টা ছিল হাথুরুর অচেনা কিছু ক্রিকেটারকে মাঠে নামিয়ে বাজিমাত করতে; কিন্তু বুমেরাং হয়েছে সব কিছুই।

বিশেষ করে দল নির্বাচনে। আগে দল নির্বাচনে হাথুরুর একটি মুখ্য ভূমিকা ছিল। তিনি নিজেই দল নির্বাচনের ক্ষমতাটি চেয়ে নিয়েছিলেন বিসিবিপ্রধানের কাছ থেকে। স্কোয়াড নির্বাচনে কোনো ক্রিকেটারের অন্তর্ভুক্তি আর বাইরে রাখার ব্যাপারে জোরালো যুক্তি থাকত তার বিসিবিপ্রধানের সামনে। কিন্তু এই সিরিজে দেখা গেল দল নির্বাচন করতে গিয়ে বিভিন্ন জনের বিভিন্ন মতকেই গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে, জনপ্রিয় মুখগুলোকে দলে ভিড়িয়ে কম্বিনেশন ওলট-পালট করা হয়েছে।

হাথুরু অনেকটা ফুটবল কোচ হোসে মরিনহোর তত্ত্বে বিশ্বাস করেন। তার কাছে তারকা নয়, পারফর্মারের মূল্যায়ন বেশি হতো। সে সঙ্গে বড় বড় প্রতিপক্ষের বিপক্ষে কিছু ‘কূটকৌশল’ও নিতে হতো তাকে। যেমন নিজের পছন্দের পিচ বানিয়ে নিয়ে একাদশ সাজানো। এই সিরিজে বাংলাদেশের ড্রেসিংরুম থেকে এমন কিছুই দেখা যায়নি, যা ধরা পড়েছে তা হাথুরুর দেখানো আগের সেই তথাকথিত ছক!

আর সেখানেই প্রশ্ন এসে যাচ্ছে, কোচ ছাড়া এভাবে আর কতদিন? ২০১৪ সালে এই শ্রীলংকার কাছে ঘরের মাঠে ওয়ানডে সিরিজ হেরে বিধ্বস্ত এক অবস্থা তৈরি হয়েছিল। সেখান থেকে বিসিবিপ্রধানের কিছু সঠিক সিদ্ধান্ত দলকে ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করেছিল। সেই সময় মাশরাফির হাতে অধিনায়কত্ব আর কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহেকে আনা হয়েছিল। এবারও বোধহয় তেমনই কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হবে বিসিবিপ্রধানকেই। চিকিৎসা শেষে কয়েকদিন হলো লন্ডন থেকে ঢাকায় ফিরেছেন নাজমুল হাসান। দলের এই পারফরম্যান্স দেখে ভীষণভাবে হতাশ তিনি। ৬ মার্চ শ্রীলংকায় শুরু হচ্ছে টি২০ টুর্নামেন্ট। তার আগে নতুন কোচ হয়তো পাওয়া যাবে না, তাই রিচার্ড হ্যালসলকে সহকারী কোচ আর খালেদ মাহমুদকে সেই টিম ডিরেক্টর হিসেবেই কলম্বো পাঠানো হবে দলের সঙ্গে। তবে এবার আর কোচ বাছাইয়ে ক্রিকেটারদের সঙ্গে বসে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আর প্রয়োজন মনে করছেন না বিসিবিপ্রধান। ‘ক্রিকেটারদের সঙ্গে বসে আর কী সিদ্ধান্ত নেওয়ার আছে। তাদের কথা শুনে, তাদের ওপর ভরসা করেই তো এই সিরিজে কোনো কোচ নেওয়া হয়নি। কোচ নির্বাচন করতে গেলে একেক জনের একেক মত। তাই এবার বিসিবি কোচ ঠিক করে তাদের সামনে উপস্থিত করবে।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিসিবি কর্তা জানান, নিদহাস ট্রফির পরই এপ্রিলের মধ্যেই প্রধান কোচ পাওয়া যাবে। তবে নিদহাস ট্রফিতে দলের সঙ্গে একজন বিদেশি ব্যাটিং কোচ পাওয়ার খুব চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এই সিরিজের পর বিসিবির ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা অন্তত এটা উপলব্ধি করেছেন যে, সস্তা জনপ্রিয়তার দিকে তাকালে আর চলবে না। দলের পরীক্ষিত ক্রিকেটার দিয়ে, শক্ত ও কৌশলী একজন কোচকে দিয়েই সবকিছু আবার আগের মতো সাজাতে হবে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 106 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com