কোন অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করলে ভয়ের কিছু নেই বা হয়রানি করা হবে না : দুদক চেয়ারম্যান

Print

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতি নিয়ে যে কোন অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করলে ভয়ের কিছু নেই বা হয়রানি করা হবে না বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা ছাড়া দুদক টিকবে না। দুর্নীতির বিষয়ে যে কোন সাংবাদিককে উৎসাহিত করা হবে। মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর প্রেস ইনস্টিটিউটে দুদক বিটের সাংবাদিকদের জন্য অনুসন্ধানমূলক রিপোর্টিং প্রশিক্ষণের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

রিপোর্টাস অ্যাগেইনেস্ট করাপশন ( র‌্যাক) ও পিআইবির যৌথ উদ্যোগে তিন দিনের এই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে দুদক চেয়ারম্যান প্রশিক্ষনার্থীদের হাতে সনদ তুলে দেন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে চেয়ারম্যান বলেন, ৫৭ ধারা বা ডিজিটাল আইন সম্পর্কে তেমন ধারণা নেই। তবে আপনাদের কোন ভয়ের কারণ নেই। দুদকের প্রতিষ্ঠানিক বিষয় নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করবেন। দুদক এসব সংবাদকে স্বাগত জানাবে। দুদকের পক্ষ থেকে কোন প্রতিবেদনের জন্য কোন মামলা টামলা হবে না। এমনকি এখন পর্যন্ত কোন প্রতিবেদনের জন্য দুদকের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ করা হয়নি। অনুসন্ধান করবেন, আপনাদের কোন ভয় নেই। নির্ভয়ে আপনারা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা করবেন।

তিনি আরও বলেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে সত্য প্রকাশ করবেন। আমি আপনাদের পক্ষে বলতে চাই, আমার বিরুদ্ধেই হোক, দুদকের বিরুদ্ধে হোক, কোন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে; আপনারা লিখবেন। অনুসন্ধানের তথ্য যদি আপনারা না দেন তাহলে প্রতিষ্ঠান চলবে না। আপনারা যদি আমাকে চ্যালেঞ্জ না করেন, আমি শুধরাবো না। আপনারা প্রশ্ন করবেন, কিছু উত্তর দেবো, সব প্রশ্নের উত্তর হয়তো আমি দেবো না, দিতেও পারবো না। সাংবাদিকিতার মূল বিষয় হচ্ছে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা। সাংবাদিকতা চলমান থাকুক। আপনারা নিরুৎসাহিত হবেন না।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, নতুন মেধাবিরা ছেলেরা সাংবাদিকতা পেশায় আসছে, এটা আশায় দিক। একটি ভিশনারী সমৃদ্ধ রাষ্ট্রের অস্তিত্ব জানান দিতে হলে সাংবাদিকতার মাধ্যমে দিতে হবে।

ডিজিটাল আইন নিয়ে সাংবাদিকদের ভীতি প্রসঙ্গে পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর বলেন, সাংবাদিকতা কোন আইন দিয়ে থেমে থাকেনি। আইন করে কোন ভালো কাজকে আটকানো যাবে না। আইন হয় খারাপদের জন্য। কাজেই আইন নিয়ে ভীত হওয়ার কোন কারণ নেই।

সমাপনী অনুষ্ঠানে পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীরেরর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাসসের প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ।

অনুষ্ঠানে দুদক বিটের সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে স্বাগত বক্তব্য রাখেন র‌্যাকের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ, সাবেক সভাপতি মিজান মালিক প্রমুখ।

আরো পড়ুন : প্রশাসনে বড় ধরনের রদবদল হচ্ছে
বিশেষ সংবাদদাতা ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ০৬:২৫

আজ-কালের মধ্যে জনপ্রশাসনে বড় ধরনের রদবদল হতে যাচ্ছে। এই রদবদলে ক্যাবিনেট সচিব মো: শফিউল আলম দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পেতে পারেন। তিনি কয়েক মাসের মধ্যেই স্বাভাবিক অবসরে যাওয়ার কথা রয়েছে। তার স্থলে স্থানীয় সরকারসচিব জাফর আহমদ খান নতুন ক্যাবিনেট সচিব হতে পারেন। বিদায়ী ক্যাবিনেট সচিব দেশের বাইরে কোনো কূটনৈতিক দায়িত্ব পেতে পারেন। শিক্ষাসচিব সোহরাব হোসেন নতুন জনপ্রশাসন সচিবের দায়িত্ব পেতে পারেন। লোকপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহমদ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্ব পেতে পারেন। বেসামরিক বিমান চলাচল সচিব মুহিবুর হক স্বরাষ্ট্রসচিবের দায়িত্ব পেতে পারেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কোনো পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। এই দফায় ১০ থেকে ১৫টি সচিব পদে রদবদল হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী ১৬ অক্টোবর উমরাহ পালনের উদ্দেশে সৌদি আরব যাওয়ার আগেই এই রদবদলের ফাইলে অনুমোদন দিয়ে যাবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা গেছে। সূত্র মতে, নির্বাচনকালীন সময়ে সরকারের বিশ্বস্ত ব্যক্তিরা যাতে এসব গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণে থাকেন সেই বিষয়টিকে এই রদবদলে সামনে রাখা হচ্ছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 60 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com