কোন দিকে যাচ্ছে টিভি নাটক

Print

দর্শক টিভি নাটক দেখে না, নাকি টিভি নাটকে দেখার মতো কিছু নেই? এই প্রশ্নটি চলতি সময়ে বেশ জোরালো হয়ে দেখা দিয়েছে। যে দর্শকদের নিয়ে এত আলোচনা-সমালোচনা, তারাই পাশের দেশের টিভি চ্যানেলে নিয়মিত বিভিন্ন সিরিয়াল দেখছে। সেসব দেখতে পারলে আমাদের চ্যানেলগুলোর নাটক তারা দেখছে না কেন তা নিয়েও নানা জিজ্ঞাসা বিদ্যমান।

এই দর্শকই একটা সময় দেশীয় নাটক দেখার জন্য উন্মুখ থাকতো। বেসরকারি পর্যায়ে টিভি চ্যানেল চালুর শুরুর দিকে নাটকের এই হ-য-ব-র-ল অবস্থা ছিল না। সেই সময়েও অনেক ধারাবাহিক ও খণ্ড নাটক দর্শকপ্রিয় হয়। এদিকে গেল দুই বছরে যে নাটকগুলো আলোচনায় এসেছে তার সবক’টি ইউটিউবের কল্যাণে এসেছে। একটা বিষয় লক্ষণীয়, ভারতীয় সিরিয়ালগুলো কিন্তু ইউটিউবের কল্যাণে জনপ্রিয় হচ্ছে না।

টেলিভিশনে প্রচার হয়েই সেগুলো দর্শকের মনে দাগ কাটছে। তাহলে প্রশ্ন জাগতে পারে কি নেই আমাদের টিভি নাটকে? কোন দিকে যাচ্ছে আমাদের টিভি নাটক? এই প্রসঙ্গে মঞ্চ-টিভি ও চলচ্চিত্র অভিনেতা তারিক আনাম খান বলেন, নাটক বরাবরই সমাজ-পরিবারের কথা বলে। বিশেষ করে যে নাটকে পারিবারিক আবহ থাকে দর্শক সেটি স্বাচ্ছন্দ্যে গ্রহণ করে। আমাদের কালজয়ী নাটকগুলোর দিকে তাকালে আমরা সেটি দেখতে পাই।

সময়ের সঙ্গে পরিবর্তন আসবে। তাই বলে কেউ মূলধারা থেকে বের হয়ে যাবে না। পরিবর্তন শুধু আমাদের দেশে নয়, সারা বিশ্বে হচ্ছে। কিন্তু তারা নিজের স্বকীয়তা থেকে সরে যাচ্ছে না। ভারতীয় সিরিয়ালগুলো বরাবরই পরিবার কেন্দ্রিক। তাদের নাটকে পরিবারের বাবা-মা, ভাই-বোন, দাদা-দাদি থেকে শুরু করে মন্দ মানুষ ও ভালো মানুষদের উপস্থাপন করা হয়। আমাদের গেল কয়েক বছরে পরিবার কেন্দ্রিক কয়টা নাটক হয়েছে? আমাদের এই সময়ে নাটকে বিষয়বস্তু থাকে প্রেম-ভালোবাসা, কিংবা দর্শকদের হাসানো। নাটক দেখলে মনে হয় বাবা-মা ছাড়াই তাদের জন্ম হয়েছে।

আমি মনে করি নির্মাতাদের পারিবারিক গল্পের দিকে জোর দিতে হবে। তাহলে দর্শক আবারো টিভি নাটক দেখবে। এদিকে টিভি নাটকে এখন আরো একটি বিড়ম্বনা হলো মাত্রাতিরিক্ত বিজ্ঞাপনের প্রচার। নাটকের মধ্যে বেশি সময় ধরে বিজ্ঞাপনের যন্ত্রণায় দর্শক টিভি নাটক দেখে না বলে মন্তব্য করেন অনেকে। ঈদে বেশ কয়েকজন নির্মাতা ও শিল্পী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞাপন নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। টেলিভিশন দর্শকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ঈদের দিন নির্মাতা শিহাব শাহীন লিখেছেন, প্রিয় দর্শক, দুঃখিত। টিভিতে আসলেই নাটক দেখার কোনো মজা নাই।

অতিরিক্ত বিজ্ঞাপনের কারণে নিজের নাটক দেখতে পারেননি তিনি। শিহাব শাহীন আরো বলেন, নাটকের মধ্যে চ্যানেলগুলো যেভাবে বিজ্ঞাপন দেয়, সেটা সহ্য করে নাটক দেখাটা মুশকিল। ফলে চ্যানেল থেকে দর্শকেরা মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন। চ্যানেলের পিঠও দেয়ালে ঠেকে যাচ্ছে। এ থেকে উত্তরণের রাস্তা তাদেরই বের করতে হবে। নাটক সংশ্লিষ্টদের মতে এই সময়ে একদিকে টিভি নাটকে বেশি বিজ্ঞাপনের যন্ত্রণা, অন্যদিকে ভালো গল্পের অভাব।

এই দু’য়ের কারণেই মূলত দর্শক টিভি নাটক দেখছে না। টেলিভিশন ও ইউটিউব কখনো এক হতে পারে না। টেলিভিশনের অনেক দায়বদ্ধতা থাকে। ইউটিউবের মতো যেমন-তেমন নাটক প্রচার করা থেকে টিভি চ্যানেলগুলোকে বের হয়ে আসতে হবে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 38 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com