ক্রিকেটে অচলাবস্থার অবসান

Print

বিসিবির সঙ্গে বৈঠকে অধিকাংশ দাবি পূরণের আশ্বাস পেয়ে ধর্মঘট স্থগিত করেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

বুধবার রাতে বিসিবিতে ক্রিকেটারদের সঙ্গে সভার পর বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান জানান, শুক্রবার থেকে ভারত সফরের পূর্ব নির্ধারিত ক্যাম্পে যোগ দেবেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। শনিবার থেকে শুরু হবে জাতীয় লিগের তৃতীয় রাউন্ড।

সোমবার ধর্মঘটের ঘোষণা এসেছিল যার কণ্ঠে, সেই সাকিব আল হাসান পরে জানালেন, ভারত সফরের প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দিচ্ছেন তারা। অন্যরা মাঠে ফিরছেন জাতীয় লিগ দিয়ে।

শুরুতে যে ১১ দফা দাবি উত্থাপন করেছিলেন ক্রিকেটাররা, তার ৯টিই মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বিসিবি প্রধান। ক্রিকেটারদের সংগঠনের কোয়াবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগের সঙ্গে বিসিবির সম্পর্ক নেই বলে সেটি নিয়ে কথা বলেনি বোর্ড। আর দুইটির বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার দাবিটি কোনো ক্রিকেটারের প্রয়োজন হলে তখন বিবেচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন বিসিবি প্রধান।

ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণার মাধ্যমে দেশের ক্রিকেটে তিন দিন ধরে চলা অচলাবস্থা ও অনিশ্চয়তার অবসান হলো।

বুধবার সন্ধ্যায় বোর্ডের রাজস্বের ভাগ ও নারী ক্রিকেটারদেরও সমান সুযোগ-সুবিধার যে দুটি দাবি ক্রিকেটাররা নতুন করে তুলেছিলেন, সেটি নিয়ে আলোচনা হয়নি সভায়। এ দিনই দাবি দুটি করা হলো বলে এসব নিয়ে পরে ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনা করবে বোর্ড।

কোয়াবের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগের দাবি সরাসরি পূরণ না হলেও উদ্দেশ্য পূরণ হচ্ছে। সভাপতি নাঈমুর রহমান সভায় ক্রিকেটারদের জানিয়েছেন, সব ক্রিকেটারকে পাওয়া যাবে এমন সময় দেখে যত দ্রুত সম্ভব নতুন নির্বাচন দেবেন তারা।

আগের ১১ দফার সঙ্গে আরও ২ দফা যোগ করে বুধবার একজন আইনজীবির মাধ্যমে বিসিবির কাছে চিঠি পাঠান ক্রিকেটাররা। এরপর বোর্ড কর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করতে তারা রাতে যান বিসিবিতে।

আলোচনার শুরুতে নিজের ক্ষোভ প্রকাশের কথা নিজেই পরে জানালেন নাজমুল হাসান। তবে পরে সবকিছু ভালোভাবে হয়েছে বলেই দাবি বিসিবি প্রধানের।

“আমার কাছে মনে হয়েছে, অত্যন্ত ভালো। ওদের কাছে হয়তো অত ভালো মনে হবে না, কারণ প্রথম দিকে আমার কিছু রাগ ছিল। পরের দিকে অবশ্য আর রাগ ছিল না। আলোচনা ভালো হয়েছে।”

আলোচনার ফল নিয়ে আপাতত ক্রিকেটাররা খুশি বলেই জানালেন সাকিব। এটি জানিয়ে রাখলেন যে আশ্বাসের পূর্ণ বাস্তবায়ন হলেই তারা কেবল পুরোপুরি সন্তুষ্ট হবেন।“পাপন ভাই (নাজমুল হাসান) বলেই দিয়েছেন যে সবগুলি আলোচনাই ফলপ্রসু হয়েছে এবং ভালোভাবে হয়েছে। আমাদের যে চাওয়া বা অনুরোধগুলো ছিল, এখানে সভাপতি ও বোর্ড পরিচালকরা শুনেছেন এবং আশ্বাস দিয়েছেন যে দ্রুততম সময়ের মধ্যে করে দেবেন।”

“এটা তো খেলোয়াড়রাই বলতে পারবে (কতটা সন্তুষ্ট)… আমার কাছে মনে হয়, বেশির ভাগ দাবি দাওয়াই তো পূরণ করতে বাকি নেই। অবশ্য এখনও তো বাস্তবায়ন হয়নি। বাস্তবায়ন হলে আমরা বলতে পারব যে খুশি কিনা। তবে এখনও পর্যন্ত যে আলোচনা হয়েছে, তাতে আমরা অনেক খুশি।”

ক্রিকেটারদের যে দাবিগুলি পূরণ করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, সেগুলি একটি একটি করেই তুলে ধরলেন বোর্ড প্রধান।

“আমি আগেই বলেছিলাম যে দাবিগুলো বেশির ভাগই মানার মতো, ওরা এখানে এলেই হয়ে যাবে। আজকে সেটিই হয়েছে। প্রিমিয়ার লিগে প্লেয়ার্স বাই চয়েজ বাদ দিয়ে আগের মতো চলে যাওয়া, আমরা বলেছি ঠিক আছে। বিপিএল পরের বার ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক করা, আমরা বলেছি ঠিক আছে।”

ক্রিকেটারদের আর্থিক ও অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধিতেও কমতি রাখা হবে বলে জানালেন নাজমুল হাসান।

“একটা বড় ব্যাপার নিয়ে সংশয় যেখানে ছিল, খেলোয়াড়দের কিছু সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো। পারিশ্রমিক বাড়ানো, ভাতা বাড়ানো ও খেলার সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো। আমরা এই ব্যাপারে কোনো কার্পণ্য করব না। অবশ্যই আমরা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ানো যায় কিনা, সেটি আমরা দেখছি।”

“এটা যে ৬ মাস বা ১ বছর পরে করব, তা নয়। আশা করছি, ২-৩ দিনের মধ্যে আর্থিক ব্যাপারগুলো আমরা করে দেব ওদের সঙ্গে যোগাযোগ করে।”

ঢাকার বাইরে একসঙ্গে বেশ কিছু জায়গায় ক্রিকেট অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ শুরু করা হবে বলে আশ্বাস দিলেন ৭ বছর ধরে বিসিবি প্রধানের দায়িত্বে থাকা এই সাংসদ।

“যেসব খেলা ও অবকাঠামো বৃদ্ধির কথা বলেছে, সেটি তো বললেই হয়ে যাবে না। আমাদের পরিকল্পনা ছিল, কয়েক জায়গায় শুরু করেছি, বছর বছর সেটি নানা জায়গায় করব। কিন্তু এখন ঘোষণা দিয়েছি, একসঙ্গে সব জায়গায় অবকাঠানো উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করব। তাতে বেশি সময় লাগবে না।”

আনুষ্ঠানিক দাবি দাওয়ার বাইরেও সভায় নিজেদের আরও অনেক সমস্যার কথা জানিয়েছেন ক্রিকেটাররা। সেসবেও মিলেছে সমাধানে আশ্বাস।

“আরও অনেক কিছু ছিল, ব্যক্তিগতভাবে আমি জানতাম না। আজকে প্রথম বিভাগ, বাইরের যারা এসেছে ক্রিকেটার, ওদের কথা শুনেছি। বেশ কিছু সমস্যা আছে। আমরা ওদের বলেছি, এইভাবে একটা একটা করে সব সমস্যার সমাধান তো করতে পারব না। যা সমস্যা আছে, আমাদেরকে লিখিতভাবে যদি পাঠিয়ে দেয়, আমরা অবশ্যই সবকটি সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করব।”

দুটির বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলতে দেওয়ার দাবিটি এখনও শতভাগ মেনে না নেওয়ার ব্যাখ্যাও দিলেন নাজমুল হাসান।

“আমাদের তো ওরকম ক্রিকেটার অনেক নাই যারা দুটির বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে সুযোগ পায়। যদি ওরকম কখনও হয়, তাহলে আমরা কেস টু কেস দেখব। তবে এখনই আমরা সেটি নিয়ে ঢালাওভাবে বলতে চাচ্ছি না। কারণ আমাদের সুনির্দিষ্ট কারণ ছিল বলেই কিন্তু আমরা এটি করেছিলাম। তারপরও আমরা বলছি, কারও যদি ডাক আসে এবং যদি সুযোগ থাকে, তাহলে আমরা দেখব।”

বোর্ডের রাজস্ব আয়ের ভাগ পাওয়ার দাবি নিয়ে নাজমুল হাসানের কণ্ঠের প্রতিধ্বনিই শোনা গেল সাকিবের কণ্ঠে।

“যেহেতু আজকেই দাবি তোলা হয়েছে এই দুটি, পাপন ভাই যেটি বললেন যে তারা আলোচনার সুযোগ পাননি, আলোচনা করে জানাবেন আমাকে।”

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 56 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com