গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অবরুদ্ধ

Print

 

 

গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

 

শিক্ষার্থীদের “অন্য কেউ এসে ধরে নিয়ে যাবে” এমন হুমকির প্রতিবাদে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ডা. লায়লা পারভিন বানু পদত্যাগের দাবিতে নিজেদের অবস্থান পরিবর্তন করেনি গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের অংশ হিসেবে সোমবার (৬ মে) দুপুরে ভারপ্রাপ্ত উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখে তারা। এ সময় আন্দোলনকারীরা ডা. লায়লা পারভিন বানুর পদত্যাগ এবং শিক্ষার্থীদের হুমকি দেওয়ার অপরাধ স্বীকার করে দুঃখবোধ প্রকাশ করার দাবি জানায়। পরে শিক্ষার্থীদের সাথে এসে কথা বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মর্ত্তুজা আলী, রেজিস্ট্রার দেলোয়াল হোসেন প্রমুখ। এরপরে উপাচার্য নিয়ে বিদ্যামান সমস্যা সমাধানের জন্য তারা আলোচনায় বসেন। 

 

 

গবি সাধারণ ছাত্র পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান রনি জানায়, “উনারা দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বাহিরে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পিএইচএ মিলনায়তনে গোপন বৈঠকে বসেছিল। আমাদের আজকের কর্মসূচি আশুলিয়া প্রেসক্লাব কেন্দ্রিক থাকলেও আমরা ঘনিষ্ঠ সূত্রে গোপন বৈঠকের খবর পাই। পরে আমরা এসে উনাদেরকে অবরুদ্ধ করে রাখি। এরপর আমাদের চাপে উনারা আমাদের দাবির পক্ষে আলোচনায় বসেন। পরে বিকালে উনারা আলোচনার সারসংক্ষেপ আমাদের জানান।”

 

 

সাধারণ ছাত্র পরিষদের সমন্বয়ক শেখ খোদাইনূর রনি জানান, “আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণ মেয়াদের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মেজবাহ উদ্দিন আহমেদকে সভাপতি করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। উনারা আগামীকাল সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আলোচনায় বসবেন। যেহেতু লায়লা পারভিন বানু আমাদেরকে হুমকি দিয়েছেন। তাই আমরা উনাকে এখন আর উপাচার্য হিসেবে চাচ্ছি না। আমরা শিক্ষার্থী বান্ধব উপাচার্য চাই। উনি ব্যতীত যে কাউকেই আমরা উপাচার্য হিসেবে চাই।

 

 

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক বৈধ উপাচার্য নিয়োগের দাবিতে গত ৬ এপ্রিল থেকে আন্দোলন করে আসছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পরে ২ মে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য  “শিক্ষার্থীদের অন্য কেউ এসে ধরে নিয়ে গেলে এর দায়ভার নিবেন না” বলার পর থেকেই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। পরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা গত ৪ মে থেকে “লায়লা পারভিন বানুকে উপাচার্য হিসেবে মানি না এবং উনার পদত্যাগ চাই” মর্মে আন্দোলন শুরু করে।

 

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 87 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com