গরম যতই হোক, এসির বাতাস থেকে সাবধান!

Print

প্রকৃতিতে এখন আগুন ঝরছে। ঘর থেকে বেরুলেই শরীর ঘেমে একাকার। অস্বস্তির এই গরমে স্বস্তির নাম শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র বা এসি (এয়ারকন্ডিশনার)। কিন্তু আসলেই কি তাই? না, খুব বেশি সময় ধরে এসির বাতাস গায়ে লাগানো ঠিক নয়। এতে দেখা দিতে পারে নানা সমস্যা।

আমাদের অজান্তে এই এসিই যে কতটুকু ক্ষতি করছে তা আমরা খেয়ালই করি না। ঘরে কিংবা বাইরে জীবন এখন এসিময়। বাড়িতে এসি। বাইরে পা রাখলে অফিসেও এসি। শপিং মলে এসি। কোন জায়গা বাদ নেই। এমনকি গাড়ির ভেতরেও এসি। কিন্তু জানেন কি, এসির এই আরাম আমাদের অলক্ষ্যেই ডেকে আনছে শরীরের জন্য ভয়ানক সমস্যা।

লম্বা সময় ধরে এসিতে থাকলে শরীরের স্বাভাবিক আর্দ্রতা কমে যায়। দেহের প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা টেনে নেয় এসির এই বাতাস। ফলে দ্রুতই রুক্ষ আর শুষ্ক হয়ে যায় ত্বক।

এছাড়া দীর্ঘক্ষণ এসিতে থাকার কুপ্রভাব পড়ে চোখেও। চোখ লাল হয়ে যাওয়া কিংবা চোখে ড্রাইনেস তৈরি হয়।

অনেকক্ষেত্রে এসি মেশিন থেকে বাতাস বের হবার ছিদ্রগুলি সময়মতো পরিষ্কার হয় না। এসি মেশিনে হাওয়া বের হবার মুখগুলিতে নোংরা জমে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া জন্ম নেয়। এসির ঠান্ডা বাসাতের সঙ্গে ব্যাকটেরিয়া মিলেমিশে শরীরে ডেকে আনে নানা বিপদ।

যাদের শ্বাসকষ্ট আছে তাদের এসিতে না থাকাই ভালো। কারণ, টানা এসিতে থাকলে ভালো মানুষেরও শ্বাসকষ্ট দেখা দিতে পারে। শরীরে তৈরি হতে পারে নানা ইনফেকশন। এসির বাতায় মানুষের শরীরে অতিরিক্ত ক্লান্তিও তৈরি করে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 44 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com