গোয়ালন্দে পুলিশের সহযোগিতায় ইলিশ শিকারের অভিযোগ!

Print

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মা নদীতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার করা হচ্ছে। গোয়ালন্দ ঘাট থানা ও দৌলতদিয়া নৌ-ফাঁড়ি পুলিশের সহযোগিতায় জেলেরা ইলিশ শিকার করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, প্রতিদিন নৌকা প্রতি নির্দিষ্ট হারে টাকা পরিশোধ করে আভিযানিক দলের চোখ ফাঁকি দিয়ে নদীতে নামছে জেলেরা। এতে করে ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান ব্যাহত হচ্ছে। তবে নিজেদের বিপক্ষে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছে থানা ও নৌ-পুলিশ।

উপজেলার দৌলতদিয়া, দেবগ্রাম ও উজানচর এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মৎস্য বিভাগের পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসন থেকে নদীতে নিয়মিত অভিযান চালানো হচ্ছে। অভিযানকালে তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে জেলেরা নদীতে নামছে। আভিযানিক দল নদীতে নামার আগেই জেলেরা খবর পেয়ে যায়, ফলে সহজে তারা ধরা পড়ে না।

অভিযোগ রয়েছে, গত বৃহস্পতিবারও দৌলতদিয়া নৌ-পুলিশের একটি দল মৎস্য বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসনকে না জানিয়ে নদীতে নামে। তিনজন জেলেকে আটকের পর তাদের কাছ থেকে টাকা আদায় করে ছেড়ে দেয়া হয়।

ইন্তাজ মণ্ডল নামের এক জেলে মুঠোফোনে জানান, জেলেদের পাশাপাশি জাল ও ইলিশ মাছ জব্দ করেছিল ওই পুলিশ সদস্যরা। পরে ৯ হাজার টাকার বিনিময়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

এর আগে গত ২২ অক্টোবর নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকারের অভিযোগে রাজবাড়ী পুলিশের এএসআই শফিকুল ও কনস্টেবল উসমান অভিযানিকদলের হাতে আটক হলে তাদেরকে বরখাস্ত করা হয়।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 45 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com