গ্রাহকের খরচ কেমন বাড়ল

Print

কুষ্টিয়ায় থাকেন শিরিন সুলতানা। দুরে থাকা স্বজন ও পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলার জন্য তার ভরসা মোবাইল ফোন এবং এটি তার নিত্যব্যবহার্য একটি জিনিস ।

তিনি চান না মোবাইল সিমের ওপর কর বসানো হোক। “সাধারণ মানুষের ব্যবহার্য সিম করমুক্ত করা উচিত” – এটাই তার কথা।

শিরিন সুলতানার মতে সরকারের উচিত প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, নিম্নবিত্তের মানুষ কিংবা শহরের বাইরে যারা থাকে তাদের ব্যক্তিগত ব্যবহার্য সিমকে কর মুক্ত করা। তবে ‘ব্যবসায়িক প্রয়োজনে যেসব সিম ব্যবহার হয় বা পদস্থ কর্মকর্তাদের ব্যবহৃত ফোনে’ ট্যাক্স বাড়ানো যেতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

তবে এবারের বাজেটে তার প্রত্যাশা পূরণ তো হয়নি – বরং অর্থমন্ত্রী শুল্ক বাড়ানোর কারণে এখন থেকে ফোনে কথা বলা বা ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য তাকে অতিরিক্ত খরচ দিতে হবে।

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল তার প্রস্তাবে বলেছেন, “মোবাইল ফোনের সিম/রিম কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে প্রদত্ত সেবার বিপরীতে সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ হতে বৃদ্ধি করে ১০ শতাংশ নির্ধারণ”।

অর্থমন্ত্রী সংসদে বাজেট বক্তৃতা শুরুর সাথে সাথে তার বাজেট বক্তৃতা প্রথা অনুযায়ী ওয়েবসাইটে তুলে দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়।

মুহূর্তের মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে মোবাইল ফোনে খরচ বৃদ্ধির বিষয়টি, শুরু হয় সমালোচনা।

কিছুক্ষণের মধ্যেই পাল্টা প্রচারণা শুরু করে সরকার সমর্থকদের একটি অংশও।

বাজেটে শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাবনার পর সরকার সমর্থকদের একটি অংশ এমন ক্যাম্পেইন শুরু করেছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 25 বার)


Print
bdsaradin24.com