চুয়াডাঙ্গার নাস্তীপুর সীমান্তে বাংলাদেশি নাগরিককে কুপিয়ে হত্যা

Print


চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি(২৮-০১-২০১৯ইং)চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নাস্তিপুর সীমান্তের ভারতের অভ্যন্তরে ওমিদুল ইসলাম (৩৩) নামে বাংলাদেশি এক নাগরিককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।সোমবার সকাল ৮টার দিকে নাস্তিপুর সীমান্তের ওপারে ভারতীয় অংশে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ভারতের কৃষ্ণনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় বলে জানায় বিজিবি। নিহত ওমিদুল ইসলাম চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নাস্তিপুর গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলম জানান, নাস্তিপুর গ্রামের কৃষকরা সকালে সীমান্ত সংলগ্ন মাঠে কৃষি কাজ করতে যান। এ সময় বাংলাদেশি সীমান্ত থেকে প্রায় ১০০ গজ ভেতরে ভারতের বিজয়নগর অংশে ওমিদুলের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে তারা বিজিবির স্থানীয় বিওপি ক্যাম্পকে খবর দেয়। পরে চুয়াডাঙ্গা সদর দপ্তর থেকে ঘটনাস্থলে আসেন বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও। পতাকা বৈঠক করা হয় বিএসএফের সঙ্গেও। এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, ধারণা করা হচ্ছে ওমিদুলকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের নামে দামুড়হুদা থানায় বেশ কয়েকটি মাদক ও চোরাচালানের মামলা রয়েছে। চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক লে. কর্নেল ইমাম হাসান জানান, খবর পেয়ে সকালেই নাস্তিপুর সীমান্ত পরিদর্শন করা হয়। পরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সীমান্তের জিরো পয়েন্টে দুই দেশের সীমান্তরক্ষীদের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে নিহত বাংলাদেশির মরদেহ ফেরত চাওয়া হয়। তিনি আরও জানান, বৈঠকে বিএসএফের কমান্ডার হোমেশ্বর সিং জানিয়েছেন, চোরাচালানীদের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে ওমিদুল খুন হতে পারেন। ময়নাতদন্তের পর নিহতের মরদেহ ফেরত দেওয়া হবে। নিহতের বাবা আব্দুল মালেক জানান, রোববার সন্ধ্যায় বাড়িতেই ছিলেন ওমিদুল। এরপর একটি ফোন পেয়ে ওমিদুল বাড়ি থেকে বের হন। এরপর রাতে আর বাড়িতে ফেরেনি। সকাল ১০টার দিকে ভারতের বিজয়নগর অংশে তার মরদেহ পড়ে রয়েছে বলে তিনি খবর পান। ছেলে হত্যার ব্যাপারে তিনি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 69 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com