ছাত্রলীগে বিদ্রোহীরা প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কারো সমঝোতায় না

Print

আওয়ামীলীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হলেও এ নিয়ে সৃষ্ট বিতর্ক ও ক্ষোভ এখনই শেষ হচ্ছে না। কমিটিতে বিতর্কিত, চাকরিজীবী, নিষ্ক্রিয়, বিবাহিত, মাদক ব্যবসায়ী, হত্যা মামলার আসামী, ছাত্রী নির্যাতনকারীদের পদ দেয়া হয়েছে অভিযোগ করে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি ঘোষণার আল্টিমেটাম দিয়েছে পদবঞ্চিত ও কাক্সিক্ষত পদ না পাওয়া নেতারা। একমাত্র প্রধানমন্ত্রী ছাড়া আওয়ামীলীগের অন্য কোন সিনিয়র নেতার সমঝোতা মেনে নিবেন না জানিয়ে আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)’তে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করার ঘোষণা করা হয়। কর্মসূচি থেকে কমিটিতে পদ পাওয়া ১৩০ জন বিতর্কিত নেতার তালিকা গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে তুলে দেয়ার ঘোষণা দেন তারা।

এদিকে পদবঞ্চিতদের কমিটিতে রাখার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিতর্কিতদের ব্যাপারে অভিযোগ প্রমাণিত হলে পদ শূণ্য ঘোষণা করা হবে। সংবাদ সম্মেলনে সোমবারের হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগের গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান ও ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় জানান, এরইমধ্যে ভিডিও ফুটেজ দেখে তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। যারা দোষী তাদেরকে আমরা চিহ্নিত করে একটি সুষ্ঠু তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেব। ছাত্রলীগে সন্ত্রাসী কার্যক্রম করে কেউ ছাড় পায়নি, পাবেও না। গত সোমবার ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে ছাত্রলীগ। ঘোষিত কমিটিতে শতাধিক বিতর্কিত নেতা স্থান পেলেও বাদ পড়েন দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির মাঠে সক্রিয় ত্যাগী নেতারা। কমটিতে প্রথমবারের মত আসা কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর অনুসারিরা গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেও বাদ পড়েছেন আগের কমিটির সক্রিয় নেতাদের বড় অংশ। আগের কমিটিতে উপ-সম্পাদক পদে থাকা ত্যাগী নেতা ৩ বছর পরের ঘোষিত কমিটিতেও একই মানের পদ পাওয়ায় পদত্যাগ করে গণঅনশন শুরু করার হুমকি দিয়েছেন বিদ্রোহী নেতারা। মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তারা। এরআগে বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনিস্টিটিউট সংলগ্ন হাকিম চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে তারা। বিক্ষোভ মিছিলটি অপরাজেয় বাংলা, শ্যাডো হয়ে মধুর ক্যান্টিনে এসে শেষ হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রচার সম্পাদ সাইফ বাবু, সাবেক দফতর সম্পাদ দেলওয়ার হোসেন শাহজাদা, সাবেক উপ-অর্থ সম্পাদক ও ডাকসুর সদস্য তিলোত্তমা শিকদার, ডাকসুর কমনরুম ও ক্যাফেটরিয়া বিষয়ক সম্পাদক ও রোকেয়া হলের সভাপতি বি এম লিপি আক্তার, উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক আল মামুন, ঢাবি কবি জসিম উদ্দিন হলের সেক্রেটারি শাহেদ খান, বঙ্গবন্ধু হলের আল আমিন রহমান ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত, সাবেক উপ স্কুল বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ আরাফাতসহ শতাধিক নেতাকর্মী।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 41 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com