জনপ্রিয় গায়ক নকুল কুমার বিশ্বাসের সংখ্যালঘুর নির্যাতন বন্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠি

Print

মাসুদুর রহমান,তেজগাঁও বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ঢাকা- জনপ্রিয় গায়ক নকুল কুমার বিশ্বাসের সংখ্যালঘুর নির্যাতন বন্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ , গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি দিয়েছেন । সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ব্যাক্তিগত ফেইসবুক আইডি থেকে গত ১০ মে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তিনি স্টেটাস দেন। স্টেটাস দেওয়ার পর থেকেই হাজারো আইডি থেকে তার খোলা চিঠির লেখা কপি করে ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা স্টেটাস দেয়। অন্য দিকে গতকাল ১৩ মে খোলা চিঠির লেখা আবৃত্তি করে ফেইসবুক ও ইউটুবে ঝড় তুলেছে জনপ্রিয় গায়ক নকুল কুমার বিশ্বাস। তার খোলা চিঠির লেকাটি হুবুহু তুলে ধরা হলো- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী-আমি- সাধারণ এক গায়ক, যন্ত্রী।আপনারা কাছে লিখলাম চিঠি বড়ই সাহস করে, সত্যি মিথ্যে যাচাই করবেন চিঠির ভাষা ধরে। গণতন্ত্রের মানস কন্যা আপনি দেশরতœ,আপনি ছাড়া কে আর করবে মানবতার যতœ। আজ-সংখ্যালঘু নির্বিচারে নির্যাতিত দেশে, গণতন্ত্র ক্ষতবিক্ষত আলামত সর্বনেশে। মানবতা আজ ভুলুন্ঠিত কুন্ঠিত নই বলতে । আমরা- চেয়েছিলাম বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে চলতে । হৃদয় দিয়ে ভাবুন নেত্রী উত্তর মিলবে তবে। যেথায়- সংখ্যালঘু সংখ্যায় বেশী নৌকা ঢুবেছে কবে? এই নৌকার গুন টেনেছে ওরা গেয়ে মুজিবের গান। এই-নৌকাকে ভালবেসে অকালে ঝরে গেছে কত প্রাণ । গেছে- বাবার সামনে মেয়ের সম্মান ,থাবা মেরেছে হায়না।তবু- সংখ্যালঘুরা শেখ হাসিনা ছাড়া কিছু চায়না।যত মারে বোমা যত মারে গুলি যত মারে পিঠে ছোরা।তবু-নৌকা দেখলে পাগল হয়ে ভুলে যায় সবই ওরা । তবু-তোমাকে দেখলে এক নিমিষে ভুলে যায় সবই ওরা। এর পরেও হিন্দুরা আজ স্বদেশে প্রবাশী । সংখ্যালঘুর ক্রান্তিলগ্ন সময় সর্বগ্রাসী। ওরা- আতংকিত! বিভীষিত! হাত পা মুখ বাঁধা রে । কত হিন্দু ভিটে বাড়ি ছাড়ছে রাতের আঁধারে! সাতচল্লিশে ত্রিশ ছিল আর উনিশে আজ মাত্র সাত। ত্রিশ পেরতেই হিন্দু শুন্য হবে বাংলাদেশ নির্ঘাত। সাভার,চাঁদপুর, চাটগাঁ,রংপুর,আশাশুনি, জামালপুর, সাতক্ষীরা আর পিরোজপুরে আর্তনাদেও, করুণ সুর। কেউ কেউ বলে ধর্মসন্ত্রাস! আমি করি- ‘না’ যুক্ত, সংশ্লিষ্ঠজন বলছে ওরা সব রাজনৈতিক দলভুক্ত! প্রশাসনের কেউ কেউ যুক্ত সুকৌশলে স্ববলে, হায়রে যারা ভূত তাড়াবে তারাও ভূতের কবলে! পঞ্চগড়ের কারাগারে ষড়যন্ত্রের মন্ত্রণালয়, আমার ভাইকে পুড়ে মারে নরকদগ্ধ যন্ত্রণায়! ওরা-আমার মাকে গাছে বেঁধে আদিম উল্লাসে মাতে,আমার বোনকে গণধর্ষণ করছে আজ দিন-রাতে।বিচার চেয়ে এতিমের মত দ্বারে দ্বারে ঘোরে শোনো,বিচারের বাণী নীরবে কাঁদে পায় না বিচার কোনো । তুমি নারী, তুমি বোঝো শ্লীলতার কি মূল্য, সংখ্যালঘু বলে কি ওরা পশুর সাথে তুল্য? একটা কিছু করো নেত্রী একটা কিছু করো,সম্ভ্রহারা আমার বোনের হাত দু’খানা ধরো। একটা কিছু করো নেত্রী একটা কিছু করো,নির্যাতিতা আমার মায়ের হাত দু’খানা ধরো। কত ভাবে বর্বতার চিহ্ন ওরা রেখে যায়,কিছু প্রকাশ হলেও বেশী অপ্রকাশই থেকে যায়। বোবা যেমন স্বপ্ন দেখে পারে না সে কইতে,সংখ্যালঘুর তেমনি দশা নিজের দেশে রইতে। সবাই যেনো বোবা কালা জীবন অভিশাপ, জন্মই হলো সংখ্যালঘুর আজন্ম এক পাপ। বিস্ময়ে হতবাক হয়ে দেখলো বিশ্ব চিরকাল, সর্বকালে সর্বদেশে সংখ্যালঘুর একই হাল! তারপরেও ছাড়তে চাই না সোনার বাংলাদেশ, তোমার কাছে এই আকুতি করলাম আমি পেশ।আছে-হাতে তোমার ক্ষমতা আর হৃদয়ে মমতা।
তুমিই আনতে পার নেত্রী বৈষম্যে সমতা,বিদায় বেলায় প্রিয় নেত্রী চাইবো আমি আজ কী আর।
চাইছি শুধু নিরাপদে বেঁচে থাকার অধিকার,তোমার সদয় দৃষ্টি ভিন্ন অন্য আর কিছু যাচি না।
জানি- সংখ্যালঘুর শেষ ভরসা জননেত্রী শেখ হাসিনা।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 135 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com