জানুন, শেষ ওভারের কি ঘটেছিল?

Print

দুর্দান্ত এক ম্যাচ। উত্তেজনার সব রসদই যেন জমিয়ে রেখেছিল। শেষ ওভার পর্যন্তও বলা যাচ্ছিল না কোন দল জিতবে। বরং বাংলাদেশ হারতে পারে, এমন সম্ভাবনা ছিল। ৬ বলে দরকার ১২ রান। স্বীকৃত ব্যাটসম্যান বলতে কেবল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এরই মধ্যে অদ্ভূত এক কারণ নিয়ে ম্যাচে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লো মোস্তাফিজ রানআউট হবার পর।

মোস্তাফিজ ননস্ট্রাইকে আউট হয়েছেন। শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে। সেই হিসেবে মাহমুদউল্লাহরই স্ট্রাইকিং এন্ডে যাওয়ার কথা। কিন্তু আম্পায়াররা বোধ হয় নতুন ব্যাটসম্যানকে স্ট্রাইকিং এন্ডে যাওয়ার কথা বলছিলেন। এমন পরিস্থিতিতে যেটা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেনি টাইগাররা।

আবার

উত্তেজনার শুরু শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলকে কেন্দ্র করে। ইসুরু উদানা মুস্তাফিজুর রহমানকে পরপর দুটি শর্ট বল করেন। টি-টোয়েন্টিতে ওভারে সর্বোচ্চ একটি বল কাঁধের ওপর দিয়ে করা যায়।

দ্বিতীয় বলটিও কাঁধের উপর দিয়ে গেছে দাবি করে ‘নো’ বলের দাবি জানান মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু আম্পায়াররা তা ডাকেননি। মাঠে থাকা মাহমুদউল্লাহকে আম্পায়ারদের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়।

সীমানায় দাঁড়িয়ে থাকা সাকিবকে দেখা যায় উত্তেজিত। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ অধিনায়ক ডাকেন ব্যাটসম্যানদের। তবে শেষ পর্যন্ত সাকিবকে বুঝিয়ে শুনিয়ে পাঠানো হয় ড্রেসিংরুমে।

পরিস্থিতি এতটাই ঘোলাটে হয়ে গিয়েছিল যে, অধিনায়ক সাকিব আল হাসান মাঠ ছেড়ে চলে আসতে বলেছিলেন মাহমুদউল্লাহ আর নতুন ব্যাটসম্যান রুবেল হোসেনকে। তারা বের হবারও প্রস্তুতিও নিচ্ছিলেন। এমন অবিচার কি করে মানা সম্ভব!

তবে সেই সময়টায় বেরিয়ে গেলে বাংলাদেশ ‘ডিসকোয়ালিফাইড’ হতো, ওয়াকওভার নিয়ে ফাইনালে চলে যেতো শ্রীলঙ্কা। শেষ ৪ বলে বাংলাদেশ ১২ রান নিতে পারবে না বলেই যুদ্ধের ময়দান থেকে পলায়ন করেছে টাইগাররা, এমন সমালোচনাও হয়তো হতো।

এমন পরিস্থিতিতে মাঠের কিনারে চলে আসেন দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। সঙ্গে বাংলাদেশ ড্রেসিংরুমের সবাই। সুজন বুঝিয়ে শুনিয়ে মাহমুদউল্লাহদের ম্যাচটা শেষ করে আসতে বলেন। শেষ গল্পটা তো সবারই জানা। এমন এক ম্যাচ মাহমুদউল্লাহর অবিশ্বাস্য ব্যাটিংয়ে জিতেই ফাইনালে উঠে গেছে টাইগাররা।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 279 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com