জেনেনিন মটর সাইকেলের কোন অংশের কী কাজ!!

Print

স্টিল, অ্যালুমিনিয়াম বা সংকর ধাতুর ফ্রেম মোটরসাইকেলের ইঞ্জিন এবং গিয়ারবক্সের কঙ্কাল বা কাঠামো হিসেবে কাজ করে।

সাসপেনশন : স্প্রিংয়ের তৈরি খুব শক্তিশালী অংশটি মোটরসাইকেলের চাকাকে ভূমির সঙ্গে আটকে রাখে এবং আরোহীকে ঝাঁকুনি থেকে বাঁচায়।

ফর্ক : সামনের চাকা ফর্কের সঙ্গে আটকানো থাকে। এটি সাসপেনশনকে ঝাঁকুনির হাত থেকেও বাঁচায়।

ব্যাটারি : ব্যাটারি মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনে এবং অন্যান্য অংশে বৈদ্যুতিক শক্তি জোগায়। অধিকাংশ মোটরসাইকেলে ব্যাটারি থাকে আরোহীর সিটের নিচে।

ইঞ্জিন : জ্বালানি ও বাতাসের দহনের মাধ্যমে মূলত ইঞ্জিন চলে। ইঞ্জিনের পিস্টন ওঠানামা করে বায়ু ও জ্বালানির মিশ্রণজনিত বিস্ফোরণের কারণে। এরপর পিস্টনের সেই গতিশক্তি ক্র্যাংক শ্যাফটে স্থানান্তরিত হয়।

ট্রান্সমিশন : ট্রান্সমিশন মোটরসাইকেলের পেছনের চাকা ঘোরায়। যার কারণে ক্র্যাংক শ্যাফটের গতি চাকায় স্থানান্তরিত হয়। গিয়ারের মাধ্যমে এটি নিয়ন্ত্রিত হয়। গতিবেগ কমানো-বাড়ানোর জন্য এখানে চার থেকে ছয় ধরনের গিয়ার থাকে।

চাকা : মোটরসাইকেলের চাকার মূল কাঠামো সাধারণত অ্যালুমিনিয়াম ও স্টিলরিমের তৈরি হয়। এর চারপাশের টায়ার মোটরসাইকেলকে ভূমি আঁকড়ে থাকতে সাহায্য করে।

ব্রেক : সামনের ও পেছনের চাকার জন্য মোট দুটি ব্রেক আছে। ডান হাতের গ্রিপ সামনের ব্রেক লিভার আর বাঁ হাতের গ্রিপ পেছনের ব্রেক লিভার নিয়ন্ত্রণ করে।

 

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 138 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com