ডোমারে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু একই পরিবারের ৪সদস্যকে পিটিয়ে আহত।

Print

ডোমারে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু একই পরিবারের ৪সদস্যকে পিটিয়ে আহত।

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>
নীলফামারী ডোমারে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের একই পরিবারের নারী ও শিশুসহ ৪সদস্যকে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করার অভিযোগ উঠেছে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে। অপর দিকে ভুক্তভুগী পরিবারকে থানায় মামলা না দিতে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে বলে জানা গেছে। বিষয়টি নিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার পাঙ্গা মটুকপুর ইউনিয়নের উত্তর মটুকপুর তেলীপাড়া গ্রামের বিমল চন্দ্র রায়ের ছেলে বাসুদেব রায় একই এলাকার কেমী মৎস্য হ্যাচারীর স্বাত্তাধীকারী আজিবর রহমানের ছেলে হুমায়ুন কবির রঞ্জুর কলেজ পড়–য়া কন্যার ফোন নম্বর বন্ধু বাসুদেবের কাছ থেকে অপর এক বন্ধু নিয়ে কথা বলাকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার ১৫মার্চ বিকালে রঞ্জু ও তার ভাই লাজু বাসুর পিতা বিমলকে তার মৎস্য হ্যাচারীতে ডেকে এনে রঞ্জু, লাজু, লাজুর ছেলে নিশান ও আলতাফের ছেলে শিমুল লাঠি শোটা ও ইট দিয়ে বিমলকে বেধরক মারপিট করে। এ সময় বিমলকে বাচাঁতে তার স্ত্রী সোনামী বালা, ছেলে বাসু ও শিশু কন্যা মনিকা বালা এগিয়ে এলে তাদেকেও মধ্যযুগীয় কায়দায় বেধক পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে নারীদের শ্লীলতাহানী করে বলে অভিযোগ করেন বিমলের পরিবার। তাদের আঘাতে বিমলের স্ত্রী সন্তার অসুস্থ হয়ে পড়ে। এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। আহতদের দেখতে ইতিমধ্যে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সংগঠনের নেতা রাম কৃষ্ণ, অমরজিৎ, তাপস ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। এ বিষয়ের উপজেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের আহবায়ক বাবু রাম কৃষ্ণ বর্ম্মন বলেন, রঞ্জুর মৎস্য হ্যাচারীর ঘটনাটি অমানবিক, আমরা স্থানীয় ভাবে মিমাংসার চেষ্টা করছি, তবে ব্যর্থ হলে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহন করবো। অভিযুক্ত রঞ্জু বলেন, মেয়ে সংক্রান্ত একটা ঘটনা ঘটেছে, যেদিন মিমাংসায় বসবো তখন আপনাকে ডাকবো বলে ফোন কেটে দেয়। ভুক্তভুগী বিমল চন্দ্র রায় জানান, আপোষ মিমাংসা নয়, আমরা রঞ্জুসহ দোষীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী

 

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 59 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com