তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার বর্ণনা

Print

গত রোববার বিদ্যালয় থেকে নিখোঁজ হয় বরিশালের পূর্ব গণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী সিমা আক্তার। পরে বিদ্যালয়ের অদূরে একটি কবরস্থানে সীমার বস্তাবন্দি মৃতদেহ পাওয়া যায়। রাতে বিমানবন্দর থানা পুলিশ সন্দেহজনকভাবে বিদ্যালয় এলাকার বাসিন্দা কালুকে গ্রেফতার করে।

বুধবার দুপুরে বরিশাল মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে আবুল কালাম কালু (৩৫)। এর আগে দুপুর ১২টার দিকে কালুকে সাংবাদিকদের সামনে উপস্থিত রেখে সংবাদ সম্মেলন করেন মহানগর পুলিশ কমিশনার এসএম রুহুল আমিন।

জানা যায়, নিহত সিমা আক্তার বরিশাল নগরী সংলগ্ন গণপাড়া গ্রামের আব্দুল জব্বারের মেয়ে ও পূর্ব গণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। ঘাতক আবুল কালাম পেশায় ট্রাক চালকের সহকারী।

পুলিশ কমিশনার এসএম রুহুল আমিন ঘাতক আবুল কালাম কালুর স্বীকারোক্তির বরাত দিয়ে জানান, বিদ্যালয়ের টয়লেট ব্যবহার অনুপযোগী হওয়ায় সীমা আক্তার গত রোববার দুপুরে বিদ্যালয় সংলগ্ন কালুর বাড়িতে টয়লেটে যায়।

স্ত্রী-সন্তান বেড়াতে যাওয়ায় কালু ওই সময়ে বাড়িতে একা ছিল। সীমা টয়লেট থেকে বের হওয়ার পর সে সীমাকে ঘরের মধ্যে নিয়ে মুখে তোয়ালে চেপে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনা প্রকাশের আশঙ্কায় সীমাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে কালু। ওই রাতেই মরদেহ বস্তাবন্দি করে কালু তার বাড়ির অদূরে হালিম মাস্টারের বাড়ির প্রবেশ পথে কবরস্থানে ফেলে রাখে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 105 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com