দিনাজপুরের ফুলবাড়ি জমি নিয়ে দু,পক্ষের সংঘর্ষ,আহত ১

Print

আসমাউল মুত্তাকিন (দিনাজপুর প্রতিনিধি): দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে জমি-জমার বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের মারপিটে হোমিও ডাক্তার মোঃ সোলাইমান হোসেন (৪০) আহত। ফুলবাড়ী উপজেলার দৌলতপুর ইউপি’র সৈয়দপুর গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ এর পুত্র মোঃ সোলাইমান হোসেন (৪০) এর ফুলবাড়ী থানায় ১৩ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দায়ের কৃত এজাহার সূত্রে জানাযায়, সৈয়দপুর মৌজার জেল নং-৭১, খতিয়ান- ২০৭, দাগ নং- ১২৮০ এই দাগের ৬২ শতকের মধ্যে ১০ শতক জমি ক্রয় সূত্রে মালিক হয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখলসহ বসবাস করে আসছে।
 ১৩ ডিসেম্বর বেলা ৩ টায় উক্ত জমিতে ইটের প্রাচীরে মোঃ সোলাইমান হোসেন পানি দিতে গেলে দৌলতপুর ইউপি’র জানিপুর গ্রামের মোঃ শরিফুল (৩২), মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (৩৩), মোঃ মোশারাফ হোসেন (৩৩) সকলের পিতা মোঃ জমির উদ্দিন, মোঃ ছমির (৬০) পিতা মতৃ খাতির মাছুদ গ্রাম সৈয়দপুর, মোঃ রব্বানী (২৮), পিতা মোঃ আব্দুল খালেক, গ্রাম জানিপুর মোছাঃ মনঞ্জুআরা (৪৫) স্বামী ছমির উদ্দিন, মোছাঃ মুক্তা পারভিন (২৮) স্বামী মোঃ মোশারাফ হোসেন, মোছাঃ সেফালী বেওয়া (৩৮) স্বামী মৃত আঃ সালাম, মোছাঃ তওছনা (৩৩), মোছাঃ আনোয়ারা (৪৫) উভয়ের পিতা মোঃ ছমির উদ্দিন, মোঃ আল-আমিন (২২) পিতা মোঃ মনু সাং- খড়মপুর, মোঃ ইব্রাহিম (৩৫) পিতা অজ্ঞাত সাং- গঙ্গাপুর, মোঃ মনঞ্জুরুল (৩২) পিতা মৃত সাইফুল সাং- মহেসপুর, উপজেলা- ফুলবাড়ী, জেলা- দিনাজপুর। তারা দলবন্ধ হয়ে লাঠিসোঠা নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে বাড়িতে ঢুকে ঘরবাড়ি ভাঙ্গচুর করে। এতে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে। মোঃ সোলাইমান হোসেন এর স্ত্রী মোছাঃ আয়শা সিদ্দিকা (৩৫) বাধা দিতে গেলে মোঃ ছমির হোসেন উল্লেখ্য ব্যক্তিদেরকে মারপিট করার হুকুম দেন। হুকুম পাওয়া মাত্র মোঃ শরিফ (৩২) লোহার রড ও সাবল দ্বারা মাতায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করলে গুরুতর জখম অবস্থায় মাটিতে পড়ে যায়।
এ সময় অন্যান্য ব্যাক্তিরা তার শরীরে লাঠি ও লোহার রড দিয়ে পিটাতে থাকে সে বাচাঁও বাচাঁও বলে চিৎকার করলে তার সাইলক আবু সাইদ মেহেদী, মোঃ রুহুল আমিন, মোঃ মান্নান, মোঃ মোসলেম ও স্থানীয় লোকজন জখম অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ঐ দিন বিকেল ৪টায় চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান। বর্তমান আহত ডাক্তার সোলাইমান চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মোঃ সোলাইমান বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় ১৩ জন কে আসামী করে ১৩ ডিসেম্বর একটি এজাহার দায়ের করেন। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবিব জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরদিকে প্রতিপক্ষরা মামলা না করার জন্য বিভিন্ন ভাবে ডাক্তার  সোলাইমান কে হুমকি প্রদান করছেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 140 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com