দৃষ্টিনন্দন হাতিরঝিলে অশালীনতার ছোবল

Print

সারাদিনের কর্মব্যস্ততা শেষে একটু প্রশান্তি ও বিনোদনের খোঁজে রাজধানীর হাতিরঝিলে ছুটে আসে নানা ধরনের মানুষ। সকালে শরীর চর্চা, বিকেলে সাইক্লিং আর সন্ধ্যা হলে আড্ডাসহ সারাবেলাই মুখর থাকে হাতিরঝিল এলাকা। সন্ধার পর পরই দেখা যায় তরুণ তরণীর মিলন মেলা। ব্রিজের রোলিংয়ে হেলান দিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডা দিতে দেখা যায় জোড়ায় জোড়া কপোত কপোতিদের। আবার ঝিলের নিচের অংশে ঘাসের উপরও বসে থাকতে দেখা যায় তাদেরকে। আর তাই নগরবাসীর অনেকে এখন হাতিরঝিলকে আখ্যা দিয়েছেন ‘ডেটিং স্পট’ হিসেবে। দিনের শুরু থেকে সন্ধ্যা এমনকি রাত ১১টা পর্যন্ত যারা চলাচল করেন তাদের চোখেই পড়ে কপোত-কপোতীদের অশালীন এ মিলনমেলা। গভীর রাতেও কোনো কোনো প্রেমিকযুগল হাতিরঝিলকে বেছে নেন প্রেমকুঞ্জ হিসাবে।

তরুণ তরুণীদের এধরনের অবস্থানকে অসামাজিক এবং অশালীন হিসেবে দেখছেন এলাকার সাধারণ মানুষ। সন্ধার পরে ঘুরতে আসা কামালউদ্দীন নামে এক স্থানীয় এলাকাবাসী ইনকিলাবকে বলেন, রাতের বেলা এভাবে তরুণ তরণীদের অবাধ মেলামেশা খুবই আপত্তিকর ও অসামাজিক। এভাবে আমাদের হাতিঝিলের দৃষ্টিনন্দন পরিবেশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এধরনের নোংরামি আমাদের সমাজে কাম্য নয়।

এধরনের পরিবেশ যুব সমাজকে নষ্ট করছে বলে অভিযোগ করছেন অনেকে। কলিমুল্লাহ নামে আরেকজন বলেন, এভাবেই আমাদের যুব সমাজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন অনেক তরুণ-তরুণী মটর সাইকেলে করে ব্রিজের উপরে আপত্তিকর অবস্থায় বসে থাকে এটা নিঃশন্দেহে অসামাজিক কাজ। এভাবে তরুণ তরুণীদের অবস্থান করাটা মোটেই সামাজিক না। এ ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে খুব দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া উচিৎ।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 91 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com