নওগাঁয় মাটি ফেটে পানির ফোয়ারা, অলৌকিক ভেবে বোতলে ভরছে মানুষ!

Print

নওগাঁর মান্দা উপজেলার মৈনম ইউনিয়নে ইটাখৈর গ্রামে একটি কলাবাগানের মধ্য থেকে মাটি ফেটে অনবরত পানি বের হচ্ছে।

গত এক সপ্তাহ ধরে এভাবে পানি বের হওয়ায় স্থানীয়রা অলৌকিক বলে দাবি করছেন। আশপাশ থেকে মানুষ ঘটনাস্থলটি দেখার জন্য ছুটে আসছেন।

আবার কেউ কেউ পানি বের হওয়াকে অলৌকিক ভেবে বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহার করছেন।

কলাবাগানের মালিকের নাম ইদ্রিস আলী। তিনি গ্রামের মৃত এরশাদ আলীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এক সপ্তাহ আগে ইদ্রিস আলীর কলাবাগানে এক নারী পাতা কাটতে গিয়ে দেখেন, বাগানের মধ্য থেকে মাটি ফেটে পানির ফোরায়া তৈরি হয়েছে। সেখান থেকে অনবরত পানি বের হচ্ছে।

পানি বের হওয়ার সময় শব্দও হচ্ছে। কলাবাগানের মালিক পানি প্রবাহের জন্য সেখানে একটি নালা করে দিয়েছিলেন।

নালা থেকে কয়েক ফুট দূরে ছোট গর্ত করে দেয়া হয়েছে। সেই গর্তে পানি জমা হলে সেখান থেকে বোতলে করে নেয়া হচ্ছে।

এদিকে মাটি ফেটে পানি বের হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে প্রতিদিন বিভিন্ন স্থান থেকে শত শত মানুষ দেখতে আসছেন।

স্থানীয়া বলছেন, আশপাশের ২-৩ কিলোমিটারের মধ্যে নদী বা কোনো খাড়ি নেই। এ ছাড়া আশপাশে অন্য কোনো পানির উৎস নেই।

এক সপ্তাহ থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হয়নি। কলাবাগানের আশপাশে জমিগুলো উঁচু ভিটে। এলাকায় পানির অভাবে তেমন ধান চাষ করা সম্ভব হয় না। এ এলাকার পানির স্তর প্রায় ৮০-১২০ ফুট নিচে।

কলাবাগানের মালিক ইদ্রিস আলী বলেন, গত দুই বছর আগে সেখানে কলাবাগান করে কলা চাষ করে আসছেন। দূর থেকে পানি নিয়ে এসে বাগানে দিতে হয়। যেখানে পানির কোনো অস্তিত্ব ছিল না, সেখানে হঠাৎ করেই মাটি ফেটে পানি বের হচ্ছে।

তিনি বলেন, এ দৃশ্য দেখার জন্য গত কয়েক দিন থেকে দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসছেন। আবার কেউ কেউ আরোগ্য লাভের জন্য পান করছেন। অনেকেই বোতলে করে পানি নিয়ে যাচ্ছেন।

স্থানীয় জাহিদ হাসান ও শামসুর রহমান বলেন, গত ৫-৬ দিন ধরে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত শত শত মানুষ ভিড় করছেন পানির উৎস দেখার জন্য। বেশিরভাগ মানুষ হাতে বোতল নিয়ে অপেক্ষা করছেন পানি সংগ্রহ করতে। পানি বোতলে ভরে নিয়ে যাচ্ছেন নিজেদের মনোবাসনা পূরণ করতে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 39 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com