নবাবগঞ্জে পানিবন্দী ১০ গ্রাম!

Print

ঢাকার নবাবগঞ্জে জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের বেড়ীবাঁধ এলাকার উওর- পশ্চিমে অবস্থিত প্রায় ১০ টি গ্রাম। গত তিনদিনে বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় হঠাৎ এই গ্রামগুলোর প্রায় ৩- ৪ হাজার লোক পানিবন্ধী হয়ে পড়েছে। এতে, এই এলাকা গুলোতে চলাচলে বিপাকে পড়েছে স্থানীয় মানুষ। হাট-বাজার,স্কুল- কলেজ, এবং কৃষকের যাতায়াতের জন্য নৌকাই তাদের একমাত্র ভরসা হয়ে দাড়িয়েছে। গ্রাম গুলোতে যাতায়াতের জন্য ঘোষাইল-রায়পুর সড়ক, পানিকাহুর-আসয়পুর, বালেঙ্গা-ঘুষাইল এই তিনটি সড়ক পানি বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে রাতারাতি ডুবে গেছে।
এসব সড়কগুলোর বিভিন্ন জায়গায় অতিরিক্ত পানি স্রোতের কারনে ভেঙে গেছে। যেখান দিয়ে ঐগ্রামের মানুষ হেটে চলাচল করতো এখন সেখান দিয়ে নৌকা দিয়ে চলাচল করতে হয়। হঠাৎ রাতারাতি পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় কৃষকের পাট ক্ষেত ডুবে গেছে। আবার অনেকের উৎপাদিত পাট জমি থেকে কেটে পচানোর জন্য জাগ দেওয়া হয়েছিল, কিন্ত রাতে কৃষক ঘুমন্ত থাকা অবস্থায় ভেসে যায় বন্যার পানির সাথে। তবে কিছু পাট থাকলেও এখন তা কষ্ঠ করে নৌকায় করে বাড়ি নেওয়া হচ্ছে।
অন্যদিকে এসব গ্রাম গুলোতে থাকা ৫টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ১ টি হাইস্কুল ডুবে গেছে। এতে ছাত্রছাত্রীরা ঠিকমতো স্কুলে যেতে পারছে না, রাস্তাঘাট পানিতে ডুবে যাওয়ার কারনে শিক্ষার্থীরা স্কুলে না আসতে পারায় এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে। এবং একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা রাখা হয়েছে, নৌকায় করে ছাত্রছাত্ররীরা স্কুলে যাওয়াআসা করে। ঐ গ্রামরে একটি মসজিদও ডুবে গেছে। এতে, নৌকায় করে নামাজ পড়তে আসতে হয় মুসল্লীদের। আসয়পুর গ্রামের কৃষক বাচ্চু মিয়া প্রতিবেদককে বলেন, আজ ছয়দিন যাবৎ আমরা পানিবন্ধী হয়ে আছি, এখনো সরকারী বা কোন সংস্থা থেকে সহযোগিতা পাইনি। আমাদের পুরো গ্রাম ডুবে গেছে, চলাচলের জন্য নৌকাই আমাদের এখন একমাত্র ভরসা।
জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. খোরশেদ আলম জানান, ছয়দিন যাবৎ এই গ্রামগুলোতে পানি প্রবাহিত করেছে। পাশে পদ্মা থাকায় প্রতিদিনই পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে, এখানকার মানুষ পানিবন্দী হয়ে আছে। যদি এভাবে পানি বৃদ্ধি পেতে থাকে তাহলে আরও কষ্টে বন্যার্তদের জীবনযাপন করতে হবে। জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী মাসুদুর রহমান বলেন, গত পাচ থেকে ছয়দিন যাবৎ পানি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। উপজেলা প্রশাসনকে এই অবস্থায় ত্রান ও সহযোগীতার জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 59 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com