নাইজেরিয়ায় স্কুল-মাদ্রাসায় ভয়াবহ আদলে নির্যাতন

Print

নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় দাউরা শহরের একটি মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের ওপর যেভাবে নির্যাতন চালানো হতো তার বিবরণ পড়লে যে কারোই গা শিউরে উঠবে।

কেউ চাইবে না এরকম একটি প্রতিষ্ঠানে কোন শিশু এক বছর তো দূরের কথা, এক মিনিটের জন্যেও সেখানে লেখাপড়া করুক। খবর বিবিসি বাংলার

এধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে তল্লাশি চালাচ্ছে নাইজেরিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী।

বেসরকারি এসব ধর্মীয় স্কুল ও পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে উদ্ধার করা হচ্ছে শিশুদের যারা সেখানে ভয়াবহ রকমের নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। তাদের অনেকেরই শরীরেই রয়ে গেছে সেসব নির্যাতনের চিহ্ন।

যেসব শিশুদের নিয়ে পিতামাতারা বাড়িতে সমস্যায় পড়েছিল, কিম্বা যেসব তরুণ ছেলে মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছিল, অথবা জড়িয়ে পড়েছিল ছোটখাটো অপরাধের সাথে, তাদের পরিবার তাদেরকে এসব প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়ে দিয়ে নিশ্চিন্তে থাকতো, কিন্তু তারা ধারণাও করতে পারতো না তাদের প্রিয় সন্তানেরা সেখানে কী ধরনের দুর্বিষহ জীবন কাটাতো।

তল্লাশি চালানোর পর কর্মকর্তারা এসব প্রতিষ্ঠানকে মাদ্রাসা নয় বরং উল্লেখ করছেন নির্যাতন কেন্দ্র হিসেবে।

নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারির নিজের শহর দাউরায় এরকম যে বাড়িটির সন্ধান পাওয়া যায় তাতে দুটো প্রধান ভবন। তার একটি ছিল রাস্তার একপাশে যেটি মোটামুটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন, সেখানে শিশুদের কোরান পড়ানো হতো। আর রাস্তার আরেক পাশে শিক্ষার্থীদের থাকার জায়গা।

সেটি ভগ্নপ্রায় একতলা একটি বাড়ি। তাতে আছে পাঁচ থেকে ছয়টি অন্ধকারাচ্ছন্ন স্যাঁতস্যাঁতে ঘর, সেখানে বদ্ধ পরিবেশ, দরজা জানালায় লোহার গ্রিল লাগানো।

এসব ঘরে যেসব শিক্ষার্থীরা থাকতেন তারা বলেছেন, ঘরগুলো আসলে জেলখানার ছোট ছোট কক্ষের মতো। একেকটা কক্ষে রাখা হতো ৪০ জনের মতো শিক্ষার্থী এবং তাদের পায়ে শেকল দিয়ে বেঁধে রাখা হতো।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 41 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com