নাটোর-রাজশাহী রুটে বাস চলাচল বন্ধঃ যাত্রীদের চরম ভোগান্তি

Print
জেলা প্রতিনিধি, নাটোরঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে নাটোর-রাজশাহী রুটে সব ধরনের বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। রোববার (২৯শে সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে আকস্মিকভাবে বন্ধ হয়ে যায় উত্তরাঞ্চলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এ রুটের বাস চলাচল। দেশের উত্তর ও দক্ষিনাঞ্চলসহ বিভিন্ন স্থান থেকে রাজশাহীগামী যাত্রীবাহী বাসগুলোকে নাটোরে এসে তাদের যাত্রী নামিয়ে ফিরে যেতে দেখা গেছে। নাটোর-রাজশাহী রুটে আকস্মিক বাস বন্ধে দূর্ভোগে পড়েছে এ রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা। তবে নাটোর থেকে উত্তরের বগুড়া-রংপুর-দিনাজপুরসহ অন্য সকল রুটে বাস চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। নাটোর জেলা বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, রাজশাহী বাস মালিক সমিতির নিষেধাজ্ঞার কারনে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে এ রুটের বাস চলাচল।
এদিকে বিএনপির মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে নাটোর-রাজশাহী মহাসড়কের অন্তত ৪টি পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে মাইক্রোবাস, কার ও অটোরিক্সাগুলোতে তল্লাশী চালায় পুলিশ। তাদের সাথে যোগ দিয়ে ‘পৃথকভাবে’ তল্লাশী চালিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। কয়েক মিনিটের দুরুত্বে ৩ থেকে ৪ বার তল্লাশীতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে যাত্রীরা। পুলিশ গাড়ি থামিয়ে যাত্রীদের তল্লাশী করে ছেড়ে দিলেও আওয়ামী লীগ কর্মীরা তাদের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে তবেই যেতে দিচ্ছেন। পাশাপাশি রাজশাহী যেতে নাটোরের বিভিন্ন আঞ্চলিক সড়কগুলোতেও অবস্থান নিয়েছেন দলীয় নেতকর্মীরা। রোববার (২৯শে সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত নাটোর-রাজশাহী মহাসড়কের বনবেলঘড়িয়া পশ্চিম বাইপাস, একডালা হাটসিংহারদহ বাজার, চাঁনপুর, লোচনগড় মোড় ও কাফুরিয়া এলাকা ঘুরে তল্লাশীর এমন চিত্র দেখা গেছে।
সকাল থেকেই গুড়িগুড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে জেলা চামড়া ব্যবসায়ী গ্রুপের সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা আকরাম হোসেন আক্কুর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ কর্মী-সমর্থকরা বনবেলঘড়িয়া পশ্চিম বাইপাস মোড়ে অবস্থান নেয়। এসময় তারা ৫টি পৃথক পয়েন্টে ভাগ হয়ে রাজশাহী অভিমুখে চলা প্রতিটি মাইক্রোবাস, সিএনজি ও অটোরিক্সা থামিয়ে তল্লাশী করেন। এসব যাত্রীদের পরিচয় ও মহাসমাবেশে না যাবার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েই তাদের যেতে দেন। জেলা চামড়া ব্যবসায়ী গ্রুপের সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা আক্কু বিহারীর জানান, বিএনপি নেতাকর্মীরা যাতে মহাসড়কে বিশৃঙ্খলা না করে সেজন্য মহাসড়কে অবস্থান নিয়েছেন তারা। একইভাবে বাগাতিপাড়া উপজেলার জামনগর ইউনিয়ন হয়ে পুঠিয়া উপজেলা হয়ে এবং নাটোরের সদরের মোমিনপুর মোল্লাপাড়া হয়ে বেশ কিছু সমাবেশগামী মাইক্রোবাস রাজশাহী গেলে আঞ্চলিক সড়কগুলোতেও অবস্থান নেন আওয়ামী লীগ কর্মীরা। মহাসড়কে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের তল্লাশীর কারনে পাশ্ববর্তী জেলা থেকে রাজশাহীর সমাবেশে যোগ দিতে যাওয়া বিএনপির অনেক নেতাকর্মী নাটোরে অবস্থান করছেন বলে দলীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে।
এ বিষয়ে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব রহিম নেওয়াজ জানান, মহাসড়কের পাশাপাশি আঞ্চলিক সড়কগুলো দখলে নিয়েছে আওয়ামী লীগ। তারা যখন যেভাবে পারছে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাধা দিচ্ছে। তাদের কারনে সাধারন মানুষও হয়রানির শিকার হচ্ছে। বিএনপির কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বাস চলাচল বন্ধের তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বাধা দিয়ে সরকার তার ফ্যাসিস্ট চরিত্রকে পোক্ত করেছে।’
নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত জানান, কোন দলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশ মহাসড়কে অবস্থান নেয়নি। পুলিশ জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থে বিভিন্ন সময় চেকপোস্ট বসিয়ে যানবাহনে তল্লাশী চালায়, যা আজও করা হচ্ছে। পুলিশের পাশাপাশি কোন রাজনৈতিক দলের সদস্যরাও তল্লাশী করছে কি না তা জানা নেই।
আপন
নাটোর
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 42 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com