নারীর অংশগ্রহণ বাড়লেও কমছে না মজুরি বৈষম্য

Print

কৃষিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ বাড়লেও কমছে না মজুরি বৈষম্য। পুরুষের সমান কাজ করেও অর্ধেক মজুরি পান নারী শ্রমিক। মজুরি বৈষম্য দূর করতে সরকারি নজরদারি বাড়ানোর দাবি নারী সংগঠনগুলোর।

কুড়িগ্রামে চাষাবাদের ক্ষেত্রে ভরসার জায়গা নারী শ্রমিক। ধানের চারা রোপন, নিড়ানি, কাটাই-মাড়াইসহ নানা কাজে বাড়ছে নারী শ্রমিকদের চাহিদা। কাজের কদর বাড়লেও ন্যায্য মজুরি পাচ্ছেন না তারা।

এক নারী কৃষক জানান, কৃষি কাজ সব করি, সবই বেটা ছাওয়ালের মত করি কিন্তু বেতন আমার কম। একই কাজ করি পুরুষে দেয় ৩০০ আমাদের দেয় ১৫০/১৮০।

মজুরি বৈষম্য নিয়ে বার বার জানানো হলেও কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ নারী সংগঠনের।

অন্য এক নারী কৃষক বলেন, নাটোরে ক্ষেতে-খামারে, ইটভাটায় কিংবা নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে পুরুষের সঙ্গে সমানতালে কাজ করছেন নারীরা। তবে পারিশ্রমিক মিলছে নগন্য। সকাল ৭ টায় আসি ৫ টায় যাই সমানই কাজ করি।

মজুরি বৈষম্য দূর ও কর্মক্ষেত্রে নারীদের সহায়তায় কাজ চলছে বলে জানালেন জেলা প্রশাসক।

মজুরি বৈষম্য দূর করতে শ্রম আইনের কার্যকর প্রতিফলনের দাবি সংশ্লিষ্টদের।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 99 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com