নারী দিবসের ভাবনায় গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

Print


মোহাম্মদ রনি খাঁ, গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ

দিন বদলের সাথে সাথে এগিয়ে যাচ্ছে সমাজ, এগিয়ে যাচ্ছে নারী। নারী আজ অবদান রাখছে দেশ- বিদেশের প্রতিটি কাজে। পিছিয়ে নেই গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও। এগিয়ে যাচ্ছে নতুন প্রজন্মকে জয় করার বন্ধুর পথে।
নারী দিবসে তাঁরাও ভাবতে শুরু করেছে নতুন করে। নারী দিবস নিয়ে তারা বলেছেন তাদের প্রাপ্তি- অপ্রাপ্তি প্রসজ্ঞে।

ফার্মেসী বিভাগের ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী দিপালী আক্তার দিপার মতে,”নারী দিবস বলতে আমি সেই দিবসটিকে বুঝি যেদিন টিতে নারীদেরকে নিয়ে সবার চিন্তা করার সময় হয়। যদিও নারী দিবস নিয়ে টেলিভিশনে অনেক টকশো হয় কিন্তু বছরের একটি দিন শুধু সম্মান পেয়ে বাকী দিনগুলোতে রাস্তাঘাটে ইভটিজিং এর স্বীকার হতে চায় না নারী আজ। নারী চায় নারী ন্য় বরং মানুষ হিসেবে সম্মান পেতে। প্রতিটি দিনই নারীরা আতঙ্ক মুক্ত হয়ে চলাফেরা করতে পারার ব্যবস্থা চায়। আমাদের সমাজে এখনো যৌতুক পথা রয়েছে। আর যেটা চোখে আঙ্গুল দিয়ে নারী পুরুষের ভেদাভেদ দেখিয়ে দেয়।”
ইংরেজী বিভাগের ১ম সেমিস্টারের তাসনিয়া আলম বলেন, ” নারী দিবস আমাদের মনে করিয়ে দেয় সমাজে আমাদের অবস্থান দৃঢ় করার কথা। নিজেকে ভিন্নভাবে গড়ে তুলার মনোবল আবার ফিরে পাই নারী দিবসে ,হারিয়ে যাওয়া সাহসটা আবার মনে দৃঢ়তা যোগায়। সমাজে নারীর অবস্থান আগের তুলনায় অনেকটাই পরিবর্তিত হয়েছে। আগে নারীকে বাজারের পণ্য মনে করা হত, কিন্তু নারী এখন নিজের অধিকার আদায় করে নিতে পারে। শিক্ষিত সমাজে নারীদের সম্মান দেয়া হলেও অশিক্ষিত সমাজে তা সম্পূর্ণ বিপরীত।”
গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের কোষাধক খাদিজা আক্তার সেতু’র বলেন, ” বর্তমানে নারী এখনো নিজের পূর্ণ স্বাধীনতা পায়নি কারণ নারীদের পড়াশোনা ব্যাপারে সচেতন নয় অনেক পরিবারই, অল্প বয়সে বিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাদের। নারী আজও অনেক ক্ষেত্রে নিপীড়িত, নারী তাঁর নিয়েও অবগত নয়। আমরা চাই আমাদের পূর্ণ অধিকার, কোনো ভেদাভেদ নয়। আমরা সেই নারী যাদের গর্ভে একটি ছেলেকে ১০মাস ১০দিন থাকতে হয়। তাই নারী চায় তাঁর পূর্ণ সম্মান।”
ইংরেজী বিভাগের ৫ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী আফরিন আক্তারের মতে, ” বিবাহিত জীবনে ১ম সন্তানের মা হয়েছি। পড়াশোনায় ৬মাস গ্রেপ পড়লেও স্বামীর প্রেরণায় নিজের ইচ্ছা পড়াশোনা করার আগ্রহ হারিয়ে যায়নি। তবুও কিছু কিছু ক্ষেত্রে সমাজ আমাদের শুধুই নারী হিসেবে দেখে, মানুষ হিসেবে নয়। আমরা চাই নারী হিসেবে নয় বরং মানুষ হিসেবে সমাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে তুলতে। নারী চায় আন্তরিকতা, কোনো দয়া নয়।”

 

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 134 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com