নির্বাচিত হওয়ার পাঁচ মাসে কী করেছে ডাকসু ?

Print

প্রায় তিন দশক পর নির্বাচনের মাধ্যমে এ বছরের শুরুর দিকে সচল হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)। স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে ডাকসুর নানামুখী ভূমিকা দেশকে পথ দেখিয়েছে বিভিন্নভাবে। সে কারণে নবনির্বাচিত ছাত্র সংসদ ঘিরে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৪৩ হাজার শিক্ষার্থী অনেক আশায় বুক বেঁধেছিলেন। নির্বাচনের পর পেরিয়ে গেছে পাঁচ মাসেরও বেশি সময়। এই পর্যায়ে এসে শিক্ষার্থীরা খুলছেন হিসাবের খাতা- তাদের নির্বাচিত ছাত্র সংসদ কী করেছে গত পাঁচ মাসে?

ডাকসুর ভূমিকার বিষয়ে জানতে চেয়ে পাওয়া গেলো মিশ্র প্রতিক্রিয়া। নির্বাচিত ছাত্র সংসদ এখনো কিছুই দিতে পারেনি বলে অনেকে স্পষ্ট অভিমত দিলেও কেউ কেউ দুষছেন সহ-সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের (ভিপি-জিএস) সমন্বয়হীনতাকে।

কথা হচ্ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক ছাত্র ওয়াসিফ ইসলামের সঙ্গে। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ডাকসু আমাদের কিছুই দিতে পারেনি। ডাকসুর প্রতিনিধিরা নির্বাচনের সময় যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা নিয়ে তারা কাজ করছেন না। আবাসিক সঙ্কট থাকছেই। সর্বোপরি ডাকসুর প্রতিনিধিদের কাছে শিক্ষার্থীদের যে চাওয়া-পাওয়া ছিল তা তারা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।

গত ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্যানেল জিএসসহ মোট ২৩টি পদে জয়ী হয়। অন্যদিকে, ভিপিসহ দুইটি পদে জয়ী হয় কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্যানেল।

নির্বাচনের সময় হলের আবাসন সঙ্কট, খাবার সমস্যা সমাধান, ক্যাম্পাস মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করা, গবেষণায় বরাদ্দ বৃদ্ধি, শিক্ষক মূল্যায়ন পদ্ধতি চালু, মানহীন ও সান্ধ্যকালীন কোর্স এবং সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলসহ নানা ধরনের ইশতেহার দিয়েছিলেন ছাত্রলীগের প্যানেলের প্রার্থীরা। অন্যদিকে, কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রার্থীরা হলগুলোতে বহিরাগত ও অছাত্রদের বিতাড়ন, ক্যাফেটেরিয়া ও ক্যান্টিনে খাবারের মান নিশ্চিত, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব পরিবহন ও রুটের সংখ্যা বৃদ্ধি, জালিয়াতির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের বহিষ্কারে কার্যকর ভূমিকা রাখা, পরিবহন সংক্রান্ত খাতে বার্ষিক বাজেটের ন্যূনতম ২ শতাংশ বরাদ্দ রাখা, গবেষণায় বাজেট বৃদ্ধি করা ইত্যাদি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 27 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com