পরীক্ষা দিতে এসে র‍্যালী করলো কোমলমতি শিক্ষার্থীরা

Print
জেলা প্রতিনিধি, নাটোরঃ নাটোরের বাগাতিপাড়ায় ৫ম শ্রেনীর মডেল টেষ্ট পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা পরীক্ষার্থীদের দিয়ে মিনা দিবসের র‌্যালি করানো হয়েছে। এতে উপজেলার অন্য পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোর সাথে তাল মিলিয়ে সময়মত পরিক্ষা শুরু হয়নি পেড়াবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে। উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন বিদ্যালয় হওয়ায় দিবসটি পালনে ওই প্রতিষ্ঠানকে বেছে নেয়া হয়েছে। পরীক্ষার পূর্বে আধা ঘন্টা র‌্যালিতে সময় দেওয়ায় অনেক পরীক্ষার্থীর মানসিক প্রস্তুতি ব্যহত হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তাদের অভিভাবকরা। তবে সংশ্লিষ্ট উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিষয়টি স্বীকার করে বলেছেন, এটি ফাইনাল পরীক্ষা নয় তাই কোন ক্ষতি হবে না।
জানা যায়, ২২শে সেপ্টেম্বর থেকে একযোগে ৫ম শ্রনীর মডেল টেষ্ট পরিক্ষা শুরু হয় । এতে বাগাতিপাড়া পৌর এলাকার ১০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৬১ জন শিক্ষার্থী পেড়াবাড়িয়া মডেল সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরিক্ষায় অংশ নিচ্ছে। মঙ্গলবার সকালে বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচিতি বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নিতে সকাল ১০ টার আগে পেড়াবাড়িয়া মডেল সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে উপস্থিত হয় শিক্ষার্থীরা। এমন সময় প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব মতিনুল হক উপস্থিত পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার কক্ষ থেকে বের হয়ে উপজেলা চত্ত্বরে মিনা দিবসের র‌্যালিতে অংশ নিতে নির্দেশ দেন। এতে পরীক্ষার্থীরা র‌্যালিতে অংশ নিতে উপজেলা চত্ত্বরে সাড়ে দশটা পর্যন্ত আধাঘন্টা লাইনে দাড়িয়ে অপেক্ষা করে। পরে র‌্যালি শেষে নাস্তা খেয়ে প্রায় ২০ মিনিট দেরীতে পরীক্ষায় অংশ নেয় পরীক্ষার্থীরা।
পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কোমলমতি শিশুরা পরীক্ষায় অংশ নিতে মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিল। কিন্তু তাদের আধাঘন্টা ধরে র‌্যালীর জন্য আটকে রাখা হয়। এতে তাদের উপর মানসিকভাবে চাপ সৃষ্টি হয়।
এ ব্যাপারে পেড়াবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব মতিনুল হক বলেন, তিনি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নির্দেশে বাচ্চাদের র‌্যালীতে অংশ নিতে বলেছেন।
উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার (ভারপ্রাপ্ত) মজনু মিয়া বলেন, এটাতো ফাইনাল পরীক্ষা না, শিক্ষার্থীদের এতে কোন সমস্যা হবেনা। পেড়াবাড়িয়া কাছের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হওয়াতে শিক্ষার্থীদের র‌্য্যালীতে অংশ গ্রহন করানো হয়েছে। তবে নির্ধারিত সময়েই পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে বলে দাবী করেন তিনি।
বাগাতিপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম গোকুল বলেন, র‌্যালীতে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার্থী জানার পর দ্রুত শেষ করার নির্দেশ দিয়েছি।
বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মুল বানীন দ্যুতি জানান, বিষয়টি তিনি জানেন না। তবে খোঁজ নিয়ে দেখা হবে।
আপন
নাটোর
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 43 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com