‘পাঠশালা’ ও ‘ভিলেন’-এর চেয়ে এগিয়ে ‘দহন’

Print

৩০ নভেম্বর দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তিনটি ছবি—রায়হান রাফি পরিচালিত দেশীয় ছবি দহন, যৌথভাবে ফয়সাল রদ্দি ও আসিফ ইসলাম পরিচালিত পাঠশালা এবং বাবা যাদব পরিচালিত আমদানি করা কলকাতার ছবি ভিলেন। ঢাকার বসুন্ধরা সিনেপ্লেক্স, যমুনা ব্লকবাস্টার, বলাকা, শ্যামলী, মধুমিতা, চিত্রমহল, যশোরের মণিহারসহ দেশের ৪৭টি হলে মুক্তি পেয়েছে দহন। স্টার সিনেপ্লেক্স, ব্লকবাস্টার—এই দুটি হলে পাঠশালা। ঢাকার অভিসার, জোনাকী, আনন্দ, এশিয়া, সনিসহ দেশের ৩৭টি হলে মুক্তি পেয়েছে ভিলেন।

সরেজমিনে কয়েকটি হলে ঘুরে ও মুঠোফোনে বিভিন্ন হলের ব্যবস্থাপক ও ছবির প্রযোজক সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় সপ্তাহে দহন না নামলেও প্রায় ২০টি হল থেকে নেমে যাবে ভিলেন। পাঠশালা ছবিটিও দুটি হল থেকে নেমে যাবে।

মুক্তির পঞ্চম দিন এসে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনটি ছবির মধ্যে দর্শক পছন্দে এগিয়ে আছে দহন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার শো শেষে মধুমিতা হলের সামনে কথা হলো শিক্ষার্থী রাজীবের সঙ্গে। সেখানে চলছিল দহন ছবিটি। রাজীব বললেন, ‘ছবির গল্প পছন্দ হয়েছে। আমাদের ধ্বংসাত্মক রাজনীতি দেশের জন্য কতটা ক্ষতিকর, তা ছবিটিতে অনেকটাই বোঝা গেছে। মোটামুটি সবার অভিনয়ই ভালো লেগেছে।’ ওই দিনের ওই শোতে দর্শকের উপচে পড়া ভিড় দেখা যায়নি। মধুমিতা হলের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ বলেন, ‘প্রথম দুই দিন হাউসফুল গেছে। এরপর থেকে মোটামুটি চলছে। দ্বিতীয় সপ্তাহেও চালাব।’

ভিলেন ছবির পোস্টারে মিমি ও অঙ্কুশভিলেন ছবির পোস্টারে মিমি ও অঙ্কুশবসুন্ধরা স্টার সিনেপ্লেক্সে প্রতিদিন দহন-এর চারটি করে শো চলছে। তিনটি করে শো চলছে পাঠশালা ছবির। স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘শুক্র ও শনিবার সব কটি শো দর্শকপূর্ণ ছিল। রোববার থেকে হাউসফুল না থাকলেও গড় দর্শক আছে দহন ছবিটিতে। দ্বিতীয় সপ্তাহেও চলবে। পাঠশালা ছবিটি ভালো। কিন্তু দর্শক কেন দেখছেন না, বুঝতে পারছি না।’ পাঠশালা নেমে যাবে বলে জানান ওই ব্যবস্থাপক।

তবে ঢাকার বাইরে দহন ছবিটি নিয়ে খানিকটা হতাশার কথা জানালেন যশোরের মণিহার সিনেমা হলের ব্যবস্থাপক তোফাজ্জেল হোসেন। তিনি বলেন, এখানে ছবিটি ভালো যাচ্ছে না। সিট সংখ্যার ২৫ ভাগ টিকিট বিক্রি হচ্ছে। রাজধানীর শ্যামলী সিনেপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক আহসানুল্লাহ জানালেন, ছুটির দুই দিন দর্শকের সাড়া ছিল। পরে এটা কমেছে।

এদিকে আমদানি করা কলকাতার ভিলেন ছবিটি মুক্তির প্রথম দিন থেকেই ভালো যাচ্ছে না। সনি সিনেমা হলের ব্যবস্থাপক ছবিটি নিয়ে হতাশার কথা জানালেন। বললেন, ‘প্রথম দিন চারটি শোর মধ্যে মাত্র সন্ধ্যার শোটি হাউসফুল ছিল। পাঁচ দিন হয়ে গেল দর্শকখরা চলছে। তাই দ্বিতীয় সপ্তাহে চালানোর পরিকল্পনা নেই ছবিটি।

ভিলেন ভালো চলছে না—এমনটা জানালেন ছবির আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এনইউ আহম্মেদ ট্রেডার্সের প্রতিনিধি জাফর উদ্দিন। তিনি বলেন, শুক্র ও শনিবার একটু ভালো গেছে। এরপর আর ভালো যাচ্ছে না ছবিটি। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রভাবেই এমনটি হয়েছে। সামনের সপ্তাহে প্রায় ২০টি হল থেকে ছবিটি নেমে যাবে। তবে পাঁচ-ছয়টি হলে নতুন করে উঠতে পারে।

দ্বিতীয় সপ্তাহে দহন ছবিটি কোনো হল থেকে না নামলেও আরও ৩০টি হলে নতুন করে উঠছে বলে জানান ছবিটির প্রযোজক আবদুল আজিজ।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 13 বার)


Print
bdsaradin24.com