পাবনার ৫ টি আসনে ভোটের ভারে টইটুম্বুর নৌকা

Print


বাকী বিল্লাহঃ(পাবনা) জেলা প্রতিনিধিঃ”নৌকায় বেশি লোক উঠে পড়েছে”এখন নিয়ন্ত্রণ রাখা কঠিন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভোট নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল জেলা শহরের একটি চায়ের দোকানে।সেখান থেকে একজন এমন মন্তব্য করলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পাবনার পাঁচটি আসনেই আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে বিজয়ী প্রার্থীদের ভোটের ব্যবধানও অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। জেলার পাঁচটি আসনে মোট ভোটার ১৮ লাখ ৭৯ হাজার ৩২৭।ভোট পড়েছে ১৫ লাখ ৯১ হাজার ৫২।এর মধ্যে আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা গড়ে ভোট পেয়েছেন ৮৩ দশমিক ৫৯ শতাংশ। জেলার ৬৬৭ টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৪ টিতে ভোট পড়েছে ৯০ শতাংশর ওপরে। ৮০ শতাংশ ওপরে ভোট পড়েছে ৩২০ টি কেন্দ্রে। অন্য কেন্দ্র গুলোতেও ৭০ শতাংশের ওপরে ভোট পড়ে। আওয়ামীলীগের প্রার্থী বাদে অন্য সব প্রার্থী মিলে ভোট পেয়েছেন ১৭ শতাংশের নিচে। পাবনা-১(সাঁথিয়া-বেড়ার আংশিক)আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন আটজন প্রার্থী। মোট ভোট পড়েছে ৩ লাখ ২৮ হাজার ৮৬ টি। আগের সব ইতিহাস পাল্টে আওয়ামীলীগের শামসুল হক টুকু পেয়েছেন ৮০ দশমিক ৮৮ শতাংশ ভোট। আসনের ১২১টি কেন্দ্রে ভোট নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে তিনি ৮ টি কেন্দ্রে ৯০ শতাংশের ওপরে ও ৫০ টিতে ৮০ শতাংশের ওপর ভোট পান নৌকার প্রার্থী।পাবনা-২ (সুজানগর-বেড়ার আংশিক)প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন।আসনের ১০৩ টি ভোট কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ২ লাখ ৫০ হাজার ৮৮১টি।এর মধ্যে আওয়ামীলীগের আহম্মেদ ফিরোজ কবির পেয়েছেন ৮৪ দশমিক ৫৭ শতাংশ ভোট।২৬ টি কেন্দ্রে তিনি ৯০ শতাংশর ওপরে ও ৪৪ টিতে ৮০ শতাংশের ওপরে ভোট পেয়েছেন। পাবনা-৩(চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া-ফরিদপুর)আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চারজন প্রার্থী।১৭১ টি কেন্দ্রে মোট ভোট পড়েছে ৩ লাখ ৫০ হাজার ৯৭০টি।এর মধ্যে আওয়ামীলীগের প্রার্থী মকবুল হোসেন ৫৬ টি কেন্দ্রে ৯০ শতাংশর ওপরে ও ৯৮ টিতে ৮০ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। সব মিলিয়ে মোট ভোটের তিনি পেয়েছেন ৮৭ দশমিক ৭৪ শতাংশ।পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘড়িয়া)আসনে প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন চারজন।১২৯ টি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৩ লাখ ১২ হাজার।এর মধ্যে অতীতের সব ইতিহাস ভেঙে ৮৪ দশমিক ০৮ শতাংশ ভোট পেয়েছেন আওয়ামীলীগের শামসুর রহমান শরিফ ডিলু।৩২টি কেন্দ্রে তিনি ৯০ শতাংশের ওপরে এবং ৬৩ টিতে ৮০ শতাংশের ওপরে ভোট পেয়েছেন। পাবনা-৫(সদর) আসনে মোট ভোট পড়েছে ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২৯৫ টি।এর মধ্যে ৮০ দশমিক ৭০ শতাংশ ভোট পেয়েছেন আওয়ামীলীগের গোলাম ফারুক প্রিন্স।১৪৪ টি ভোট কেন্দ্রের ১২টিতে তার প্রাপ্ত ভোট ৯০ শতাংশের ওপরে এবং ৬৫ টিতে তিনি ৮০ শতাংশের ওপরে ভোট পান।রেকর্ড সংখ্যক এই ভোট জেলাব্যাপী নানা আলোচনার জন্ম দিয়েছে। বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার ২০ থেকে ২২ ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলে মিলেছে ভিন্ন ভিন্ন মন্তব্য। সহিংসতা ছাড়া এই ভোটকে নান্দনিক কৌশল বলে মন্তব্য করছেন অনেকে।তবে আওয়ামীলীগের নিরঙ্কুশ এই বিজয়ের পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়েও অনেকে আশংকা ব্যক্ত করেছেন। পাবনা শহরের রিক্সাচালক আব্দুল মমিন বলেন, “ভোট তো এমনে এমনেই হয়া গেলো কিছু টেরই পেলাম না”। শালগাড়িয়া মহল্লার চাকরীজীবি আনোয়ার হোসেন বলেন, উন্নয়ন অব্যাহত রাখার তাগিদে এ কৌশল ঠিক আছে। তবে গনতান্ত্রিক দিকটাও ভাবনার বিষয়। সংস্কৃতিকর্মী  স্বাধীন মজুমদারের ভাষায় নিরঙ্কুশ এই বিজয়ের আওয়ামীলীগের ঘাড়ে বেশি মানুষ ভর করার চেষ্টা করবে। এতে বিশৃঙ্খলার আশংকা আছে,যা ক্ষতির কারণ হতে পারে। পাবনা শিল্প ও বণিক সমিতির জ্যৈষ্ঠ সহ-সভাপতি আলী মর্তুজা বিশ্বাস বলেন, আমরা শান্তি চাই। ব্যবসা বানিজ্যের সুন্দর পরিবেশ চাই। শান্তি পুর্নভাবে ভোট শেষ হয়েছে এটাই ভালো লাগার। এ প্রসঙ্গে পাবনা-১ আসনের আওয়ামীলীগের বিজয়ী প্রার্থী শামসুল হক টুকু বলেন, উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে নৌকার গনজোয়ার তৈরি হয়েছিল। ফলে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকায় ভোট দিয়েছেন। এখন আমাদের দায়িত্ব আরও বেড়ে গেল। 

বাকী বিল্লাহ পাবনা জেলা প্রতিনিধি 

মোবাইলঃ০১৯২১-৩৪৩৩৩৪
তারিখঃ০৩/০১/২০১৯ ইং

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 79 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com