পুরাতন ইয়াহু মেইল ব্যবহারকারীদের জন্য অশনিসংকেত

Print

১৯৯৪ সালের জানুয়ারি মাসে জেরি ইয়াং ইয়াহু এবং ডেভিড ফিলো ইয়াহু প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথম দিক থেকেই ইয়াহুতে ম্যাসেঞ্জার এর সুবিধা যুক্ত ছিল। ধীরে ধীরে এর ব্যবহার অনেক ক্ষেত্রেই পুরো বিশ্বজুড়েই ছড়িয়ে যায়। বিভিন্ন কোম্পানি বা রাষ্ট্রীয় মেইল হিসেবেও ইয়াহু এর ব্যবহার দেখা গেছে বিভিন্ন দেশ এবং বড় বড় জায়েন্টদের মধ্যে।

ফেসবুক প্রতিষ্ঠার পূর্বে ইয়াহুর ব্যবহার ছিল জনপ্রিয়তার তুঙ্গে। ইয়াহু ম্যাসেঞ্জার ছিল সেই সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় বার্তা ও ছবি আদান প্রদান এর মাধ্যম।

ইয়াহু সিকিউরিটির কয়েকটি ধারাবাহিক পর্যায় রয়েছে। ২০০৪-১০ সালের মধ্যে বা পূর্বেকার সময়কালীন যারা ইয়াহু একাউন্টগুলো ব্যবহার করেছেন তাদের ক্ষেত্রে (OTP) One Time Password আসতো না, যার ফলে মোবাইল ফোন নাম্বার ইয়াহুতে এডকন্টাক অপশন ছিল না।

বর্তমান সময়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট অবৈধভাবে নিয়ন্ত্রণ করা খুব সহজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে যারা ইয়াহু মেইল আইডিতে যুক্ত করে রেখেছেন তারা আছেন বিশেষ ঝুঁকির মধ্যে। কারণ যাদের অনেক পুরনো ফেসবুক আইডি রয়েছে ও যাদের ইয়াহু মেইলের পাসওয়ার্ড মনে নেই, আইডি অন্যের নিয়ন্ত্রণে চলে গেলে ফেরত পাবার আশা খুব কম সেই সকল আইডির।

কারণ ইমেইল ছাড়া ফেসবুক আইডিগুলো রিকভার করা খুবই কষ্টসাধ্য আর যখন ইমেইলও হ্যাক হয়ে যায় সেই ক্ষেত্রে আইডিগুলো প্রায় ৭০ ভাগ ক্ষেত্রেই রিকভার করা সম্ভব হয়না। বর্তমানে ইয়াহুর আইডিগুলো যারা ক্লোন করে নিয়ন্ত্রণে নেবার চেস্ট করে তাদেরকে স্থানীয়ভাবে ইয়াহু ক্লোনার বলা হয়ে থাকে।

যেমন আপনার ইয়াহু অ্যাকাউন্টের ভিক্টিমের একাউন্টের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে একই নামে ক্রিয়েট করে থাকে। এটি করতে সময় প্রয়োজন ৫-২০ মিনিট। যখন ক্লোনাররা একটি ইয়াহু মেইল পাবে সেটির ফেসবুক আইডিতে গিয়ে লগইন করার চেষ্টা করবে।

এরপর ফর্গেট পাসওয়ার্ড করে তারা নিশ্চিত হবে। এবার একটি মোবাইল সংযুক্ত করার মাধ্যমে ইয়াহু আইডি মেইল খুলে আপনার আইডি তার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিবে। যদি আপনি ইয়াহু পাসওয়ার্ড রিকোভার করতে না পারেন, সেক্ষেত্রে আপনি আপনার আইডি কখনই ফেরত পাবেন না বললেই চলে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 30 বার)


Print
bdsaradin24.com