প্রকল্পের গাড়ি নিয়ে তুলকালাম কাণ্ড

Print

আমাদের প্রিয় প্রধানমন্ত্রীকে আমরা নতুন রূপে দেখছি। তিনি দুর্নীতি আর দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে খুব কঠোর অবস্থানে চলে গেছেন তা উনার বিগত কয়েকদিনের কর্মকাণ্ডেই বুঝা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- ‘কাউকে ছাড় নয়, সবার আমলনামা আমার হাতে’। সেই ‘আমলনামা’য় কী কী আছে তা সব জানা না গেলেও কিছু কিছু জানা যায় বিভিন্ন সূত্রে। তা থেকে কিছু তথ্য নিয়ে এবার আমরা বিভিন্ন সরকারী উন্নয়ন প্রকল্পের গাড়ির যে অপব্যবহার আর লুটপাট হচ্ছে তার কিছু তথ্য আমাদের কাছে বিভিন্ন সূত্রে এসেছে।

বাংলাদেশ এখন নানামুখী উন্নয়নের কর্মযজ্ঞের জোয়ারে ভাসছে, দেশের অর্থনীতি হচ্ছে শক্তিশালী, একই সাথে ভরছে মানুষের ব্যক্তিগত পকেট। উন্নয়নের সাথে পাল্লা দিয়ে অক্টোপাসের মত আমাদের ঝাপটে ধরছে দুর্নীতি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রাণান্ত চেষ্টা করে চলেছে কিছু সৎ আমলা আর কিছু সৎ রাজনৈতিক কর্মী নিয়ে। উন্নয়নের কারণে দেশে শিল্প কারখানা বাড়ছে, বাড়ছে সেবা, পরিসেবা খাত। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ঋণের টাকায় বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সরকারী বিভিন্ন দপ্তরে আনা হচ্ছে উন্নত যন্ত্রপাতি, নানা রকমের দামী যানবাহন, ইত্যাদি। তাই এই দফায় যন্ত্রপাতির কথা বাদ দিয়ে শুধু গাড়ি নিয়ে কী তুঘলকী হচ্ছে বিভিন্ন সূত্রের বরাতে তার একটা বাস্তব ছবি আঁকার চেষ্টা করা যেতে পারে।

দীর্ঘদিন থেকেই সরকারি গাড়ি ব্যবহারে অনিয়মের বিষয়টি বহুল আলোচিত। যারা বয়স্ক তাঁরা জানেন যে, এখন গাড়ির নাম্বার প্লেট দেখে আর বোঝা যায় না কোনটা সরকারী আর কোনটা বেসরকারি গাড়ি। আগে সরকারী গাড়ির নং প্লেটের রং ছিলো লাল, কর্পোরেশনের গাড়িগুলোর নং প্লেটের রং ছিলো নীল কিংবা সবুজ আর বেসরকারি গাড়ির নং প্লেটের রং ছিলো কালো। ছুটির দিনে, গভীর রাতে বিভিন্ন স্থানে সরকারী গাড়ি ব্যক্তিগত কাজে বা আত্মীয় বন্ধু কিংবা প্রেমিক প্রেমিকাদের জন্য ব্যবহার হতো। বেরসিক সাংবাদিক এসবের ছবি তুলে পত্রিকায় দেদারসে ছাপানর ফলে বিব্রত সরকারী কর্মকর্তাগণ গাড়ির নং প্লেটের রং কালো করে ফেললেন যাতে সহজে চেনা না যায়। এখনো বিভিন্ন মিডিয়ায় সরকারী গাড়ির ব্যবহারে অনিয়মের বিষয় নিয়ে খবর ছাপা হচ্ছে। বিদ্যমান সরকারী আইন অনুযায়ী কোন প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মানে ৬০ দিনের মধ্যে ঐসব প্রকল্পের গাড়ি সরকারের পরিবহন পুলে জমা দেওয়ার কথা, কিন্তু তা হচ্ছে না। এ বিষয়ক অনিয়মের কারণে প্রতি বছর সরকারের কোটি কোটি টাকা অপচয় হচ্ছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 45 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com