প্রশাসন নিরব, পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পরেও চলছে অবৈধ মাহেন্দ্রা ও মাটির ব্যবসা।

Print
দোহার-নবাবগঞ্জ, প্রতিনিধি।
গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সমকাল, এশিয়া বার্তা, আগামীর সময়, বিডি সারাদিন২৪.কম পত্রিকায় লাগাতার সংবাদ প্রকাশের পরেও পাল্লা দিয়ে চলছে অবৈধ মাহেন্দ্রা ও মাটির বাণিজ্য। পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছে। গত ৩ ফেব্রুয়ারি বরিবার উপজেলার মুকসুদপুর ইউনিয়নের পদ্মা সরকারি কলেজের এলাদশ শ্রেণীর ১ম বর্ষের ছাত্র মো. শাওনের মাহেন্দ্রা চাপায় মৃত্যু হওয়ার পরে পুলিশ প্রশাসনের কানে পানি গিয়ে ছিল। তাই শুধুই মুকসুদপুর ইউনিয়নে মাহেন্দ্রা চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ প্রশাসন এবং উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ. হান্নান। কিন্তু
ঢাকার দোহার উপজেলার উত্তর শিমুলিয়া, ঝনকি, মালিকান্দা, দক্ষিণ শিমুলিয়া, মেঘুলা,বানাঘাটা, সুতারপাড়া, নিকড়া, জালালপুর, নারিশায় ইট ভাটা ও এলাকায় অবৈধ ভাবে মাটিখেকোরা চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধ মাহেন্দ্রা ও মাটির ব্যবসা, সেই সাথে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। বিশ্বস্ত সুত্রে জানাযায়, নারিশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন দড়ানি এ মাহেন্দ্রা ও মাটি ব্যবসার সাথে জড়িত। এছাড়া উত্তর শিমুলিয়ার কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যাক্তিবর্গসহ কমল হাসান ও জয়দর আলী নির্দিধায় চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধ মাহেন্দ্রা ও মাটির ব্যবসা।অনুসন্ধানে আরও উঠে আসে পুলিশকে মাশুয়াড়া দিয়েই তারা এ ব্যবসা  চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয়দের  অভিযোগের ভিত্তিতে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার জালালপুরচক থেকে ভেকো দিয়ে ফসলী জমি থেকে মাটি কেটে মাহেন্দ্রায় চাপিয়ে বিক্রি করছে উপজেলার বিভিন্ন ইট ভাটায় ও এলাকায়। মাহেন্দ্রা গুলোর নেই কোন রেজিস্ট্রেশন নাম্বার, ড্রাইভারদের নাই কোন ড্রাইভিং লাইসেন্স, এমনকি ড্রাইভারদের বয়সও ১৮ বছরের নিচে। এছাড়া মাহেন্দ্রা জমি চাষ করার একটি আধুনিক কৃষিযন্ত্র। তার পেছনে মালামাল টানার জন্য ডাব্বা লাগিয়ে এখন মাটি টানার কাজ করছে। এতে করে রাস্তাঘাট, বাড়িঘর, দোকানপাটসহ পরিবেশের মারাক্তক ক্ষতি  সাধিত হচ্ছে। রাস্তারলোকজন, দোকানপাট ও ঘরবাড়ির অবস্থা ধুলায় বেহাল দশা। বাতাসে ধুলিকনা মিশ্রণের ফলে শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে আবার নানা ধরনের বায়ু দুষিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে অনেকে। দূর্ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত।প্রশাসনের কাছে স্থানীয়দের প্রশ্ন শাওনের মত আর কারও প্রান নেওয়ার পরে কি এসব এলাকায়  বন্ধ হবে মানুষের প্রান ঘাতক মাহেন্দ্রা? তার পরে কি পুলিশ প্রশাসন নিবে ব্যবস্থা? রাস্তাঘাট ভেঙ্গে হচ্ছে নালা।
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 30 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com